| |

সর্বশেষঃ

ময়মনসিংহ সদরে শামীমসহ ৩০ বিদ্রোহী প্রার্থীকে সতর্ক করেছে আওয়ামীলীগ

আপডেটঃ ১১:০৭ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ০৫, ২০১৮

বিশেষ প্রতিবেদন, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সম্ভাব্য বিদ্রোহী প্রার্থীদের চূড়ান্তভাবে সতর্ক করছে মতাসীন দল আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার দলের শীর্ষ নেতারা টেলিফোনে বা ধানমন্ডিতে ডেকে নিয়ে কড়া বার্তা দিয়েয়ছেন ৩০ জনকে। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন অর্থাৎ ৯ ডিসেম্বরের আগেই তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে বলা হয়েছে। অন্যথায় তাদের জন্য আওয়ামী লীগের দরজা চিরদিনের মতো বন্ধ হয়ে যাবে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, সতর্ক বার্তা পাওয়া ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীরা দু’ একদিনের মধ্যেই তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেবেন বলে কেন্দ্রীয় নেতাদের আশ্বস্ত করেছেন। জানা যায়, মঙ্গলবার বিকালে দলীয় সভাপতির ধানমন্ডির কার্যালয়ে বসে বিভিন্ন জেলার ৩০ বিদ্রোহীর সঙ্গে কথা বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, বি এম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমসহ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা।
যেসব আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী দেওয়া হয়েছে, সেসব আসনে বিদ্রোহী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যহার করে দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে কাজ করতে বলা হয়েছে। আর যেখানে মহাজোটের প্রার্থী রয়েছে, সেসব আসনে আওয়ামী লীগের যেসব নেতা চিঠি ছাড়া প্রার্থী হয়েছেন তাদের জোটের স্বার্থে দলের যে কোনো সিদ্ধান্ত মেনে নিতে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। তা না হলে তাদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা গেছে, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমানের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। মতিউর সুনামগঞ্জ-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দলের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এ আসনে মহাজোটের প্রার্থী জাতীয় পার্টির বর্তমান এমপি পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ। মতিউর রহমান নিজের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেবেন বলে কেন্দ্রীয় নেতাদের জানিয়েছেন। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিতে সম্মত হয়েছেন মেহেরপুর-১ আসনে বিদ্রোহী প্রার্থী জয়নাল আবেদীনও।

একইভাবে, দলীয় সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে মেসে নিবেন ময়মনসিংহ-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আমিনুল হক শামীম। উল্লেখ্য, ময়মনসিংহ-৪ আসন বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদকে ছেড়ে দেওয়া হতে পারে।

কেন্দ্রের ফোন পাওয়া সাতীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাতীরা-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ মুজিবুর রহমান বলেন, আমাকে ফোন করে বলা হয়েছে, নেত্রী ডেকেছেন। নেত্রীর সঙ্গে দেখা করতে ঢাকায় এসেছি, তিনি যে সিদ্ধান্ত দেবেন-আমি সেটাই মেনে নেব। সূত্র জানায়, গতকাল বরগুনা সদর আসনে জাহাঙ্গীর কবিরসহ আরও ২ জন বিদ্রোহী প্রার্থী, পিরোজপুরে এ কে এম আউয়াল, মেহেরপুরে জয়নাল আবেদীনসহ প্রায় ৩০ জন বিদ্রোহী প্রার্থীর সঙ্গে কথা বলেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। পরে তারা গণভবনে গিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন। তারা দলীয় সভানেত্রীকে বিদ্রোহী প্রার্থীদের ব্যাপারে অবহিত করেন।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting