| |

সর্বশেষঃ

সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি হতে চান গৌরীপুরের আওয়ামীলীগের ৫ নেত্রী

আপডেটঃ ৬:১২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২২, ২০১৯

শামীম খান, গৌরীপুর ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি হতে চান ময়মনসিংহের গৌরীপুরের আওয়ামীলীগের পাঁচ নারী নেত্রী। তাঁরা হলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী প্রয়াত মাহবুবুল হক শাকিলের স্ত্রী ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য নিলুফার আনজুম পপি, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য নাজনীন আলম, অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি, সাবেক এমপি মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের স্ত্রী সাবেক এমপি গৌরীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বেগম রওশন আরা নজরুল ও উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রাবেয়া ইসলাম ডলি। এরমধ্যে উল্লেখিত পাঁচ হেভিওয়েট নেত্রী ধানমন্ডিতে আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

প্রার্থীদের জনপ্রিয়তা, যোগ্যতা, ত্যাগ ও মাঠের অবস্থান বিবেচনা করে জননেত্রী শেখ হাসিনা একাধিক নারী নেত্রীকে ময়মনসিংহ জেলায় নারী আসনে এমপি মনোনীত করতে পারেন বলে স্থানীয় রাজনৈতিক মহল মনে করেন। এক্ষেত্রে যোগ্য, ত্যাগী ও জনপ্রিয়দের সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি হিসেবে দেখতে চায় আওয়ামীলীগের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা।

নিলুফার আনজুম পপি জানান, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি তাকে সুযোগ দেন, তাহলে দেশের নারীদের উন্নয়নে জন্য কাজ করে যাবেন।’ তিনি সকলের সমর্থন ও দোয়া কামনা করেছেন। উল্লেখ্য নিলুফার আনজুম পপি ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ২নং ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আবুল হাসিমের কন্যা।

নাজনীন আলম জানান, তিনি ও তাঁর স্বামী বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ব্যাংক কর্মকর্তা ফেরদৌস আলম গৌরীপুরে আওয়ামী রাজনীতিতে দীর্ঘ বছর ধরে সক্রিয়ভাবে ভূমিকা পালন আসছেন। ময়মনসিংহ-৩ আসনে এমপি পদে একাধিকবার দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হন তিনি। এতে গৌরীপুরের জনগন হতাশ হয়েছেন। তিনি আশাবাদী জনপ্রিয়তা ও যোগ্যতার মাপকাঠিতে যদি মনোনয়ন দেয়া হয় তাহলে জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে মনোনয়ন দিবেন।

অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি জানান, দলের জন্য নিবেদিত হয়ে তিনি শ্রম দিয়ে আসছেন কোন কিছু পাওয়ার জন্য নয়। এলাকার মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে তিনি সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। এক্ষেত্রে জননেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত তিনি মেনে নিবেন। টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের এই অভিনেত্রী এর আগে সদ্য অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হন। মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েও তিনি দলীয় মনোনীত প্রার্থী বিজয়ে এলাকায় সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন। জ্যোতিকা জ্যোতির জন্মস্থান ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার সহনাটি ইউনিয়নের হতিয়র গ্রামে।
রাবেয়া ইসলাম ডলি জানান, ছাত্র জীবন থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে রাজপথে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন তিনি। দুঃসময়েও কখনো রাজনীতি থেকে পিছিয়ে যাননি। এজন্য জনগন তাঁকে একাধিকবার গৌরীপুর পৌরসভার কাউন্সিলর ও সর্বশেষ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। তিনি বলেন, নারী উন্নয়নে এলাকায় তিনি আগে থেকেই কাজ করে আসছেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি তাঁকে মনোনয়ন দেন তাহলে সমাজের অবহেলিত নারীদের ভাগ্য পরিবর্তনে নিজেকে উৎসর্গ করার সুযোগ পাবেন।

রওশন আরা নজরুল জানান, তাঁর স্বামী বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম ছিলেন সহনাটি ইউপির ৩ বারের নির্বাচিত জনপ্রিয় চেয়ারম্যান। ১৯৯১ সনে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে তিনি ময়মনসিংহ-৩ আসনে বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হন। ১৯৯২ সালের ৮ই আগষ্ট এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি অকাল মৃত্যুবরন করেন। স্বামীর মৃত্যুর পর এ আসনটিতে উপ-নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর থেকে তিনি গৌরীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়ে দলীয় কর্মসূচীতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছেন। তিনি দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্তির ক্ষেত্রে আশাবাদী।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting