| |

সর্বশেষঃ

জমতে শুরু করেছে একুশে বইমেলা

আপডেটঃ ১১:৩৩ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : চতুর্থ দিনে ধীরে ধীরে জমতে শুরু করেছে একুশে বইমেলা। প্রতিদিন নতুন নতুন বই আসার সংখ্যাও বাড়ছে। পাল্লা দিয়ে পাঠক-ক্রেতা-দর্শনার্থীর ভিড়ও বাড়ছে। আর কবি-লেখকরা ঢু মারছেন মেলা চলাকালীন কোনও না কোনও সময়ে। এদিকে গত কয়েক বছরের ধারাবাহিকতায় এবারো মেলায় দর্শনার্থীদের সরকারের বিভিন্ন ডিজিটাল সেবা সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হচ্ছে।

মেলায় এটুআইয়ের ডিজিটাল সেবা স্টলের অপারেশন ম্যানেজার শাহরিয়া আফাত সজিব ঢাকা টাইমসকে বলেন, যে কোন সমস্যার জন্য ৩৩৩ এই নাম্বারে কল করলে সেবা পাবেন। এছাড়া সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের সেবা পেতে এই নম্বরে কল করলে সহজেই সেবা পাবেন। থানা বা জেলা প্রশাসকসহ স্থানীয় সরকারের যে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ নম্বর চাইলে তাকে ফিরতি এসএমএস এর মাধ্যমে সেই ব্যাক্তি বা প্রািতষ্ঠানের যোাগাযোগ নম্বর এবং ই-মেইলের ঠিকানা তার মোবাইলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এছাড়াও এক শপ নামের একটি ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হচ্ছে। এ ওয়েবসাইটটিতে দেশের বাজারে থাকা বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটগুলোতে থাকা সকল পণ্যের তথ্য একসঙ্গে দেখার সুযোগ। এক শপ নামের এ সাইট থেকে একজন ক্রেতা একটি পণ্য দেশের বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটে ঘুরে দেখে কিনতে পারবেন।
এছাড়াও এক শপের মাধ্যমে ডেশের যে কোনো স্থানে বসে ডিজিটাল ইউনিয়ন সেন্টারের মাধ্যমেও তারা এ শপের মাধ্যমে কেনা কাটা করতে পারবেন।
এক শপের মাধ্যমে মেলায় ঘুরতে আসা দর্শকদের জন্যও বই কেনার সুযোগ রয়েছে। মেলা থেকে যে কোন বই অর্ডার করলে ক্রেতারা পাবেন সারাদেশে ফ্রি হোম ডেলিভারি। সঙ্গে পাবেন ২৮% মূল্যছাড় এছাড়াও বিকাশের মাধ্যমে প্রেমেন্ট করলে পাবেন ১০% ছাড়।

এটুআইর আওতায় মেলায় চলছে প্রথম বারের মত জেলা ব্র্যান্ডিং সার্ভিস। প্রতিটি জেলার নামে রয়েছে একটি করে বই যেখানে সহজেই একজন পাঠক দেশের বিভিন্ন জেলার দর্শনীয় স্থান, বিখ্যাত ব্যক্তি এবং জনপ্রিয় খাবার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। দেশের ৫০টিরও বেশি জেলার সকল তথ্য সম্বলিত বই মেলায় প্রদর্শন করা হচ্ছে। এখন বিক্রি না করলেও কিছু দিনের মধ্যেই ক্রেতারা কিনতে পারবেন।

মেলায় ডিজিটাল সেবা নিয়েছেন রংপুর থেকে আসা জামাল হোসেন। তিনি ঢাকা টাইমস কে বলেন সাভারের শেখ হাসিনা যুব উন্নয়ন প্রশিক্ষন কেন্দ্র থেকে গবাদি পশু পালনের উপর একটি কোর্স করছি আমি এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানতে বই কেনার জন্য মেলায় এসেছি। এখানে এসে প্রন্তিক পর্যায়ে কৃষকের জন্য সরকারের এমন ডিজিটাল সেবা দেখে আমার অনেক ভালো লেগেছে। আমিও কিছু দিনের মধ্যে একজন খামারি হিসেবে এমন সেবা নিতে পারব।

HostGator Web Hosting