| |

সর্বশেষঃ

স্বামীর কণ্ঠ নকল করে মোবাইলে প্রতারণা

ময়মনসিংহে প্রতারক চক্রের সদস্য ডিবি’র অভিযানে গ্রেফতার

আপডেটঃ ৮:৫২ অপরাহ্ণ | মার্চ ০৬, ২০১৯

মোঃ রাসেল হোসেন, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : ময়মনসিংহে মোবাইলফোনে স্বামীর কণ্ঠ নকল করে আটক রাখার দাবী করে মুক্তিপন বাবদ নগদ টাকাসহ প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকার স্বর্ণলংকার হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারকচক্র। অভিযোগের ভিত্তিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ এ প্রতারকচক্রের মূলহোতা ঈশ্বরগঞ্জের আশরাফুলকে গ্রেফতার করেছে। গত মঙ্গলবার তাকে হালুয়াঘাট থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আশরাফুল ঘটনার দায় স্বিকার করেছে। তার কাছ থেকে প্রতারণায় ব্যবহৃত সীম, মোবাইল সেটসহ প্রায় দুুই ভড়ি স্বর্ণালংকা উদ্ধার করা হয়েছে।

ডিবি পুলিশের ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, গত ১২ ফেব্র“য়ারী রাতে জনৈক দিলরুবার ব্যবহৃত ফোন নং-০১৯০৪৯৯৫০৫২ তে অজ্ঞাতনামা মোবাইল ফোন নং-০১৭০৩৬৪২৮৩৯ থেকে ফোন করে তার স্বামীর কন্ঠস্বর হুবহু নকল করে স্বামীর পরিচয় দেয়। পরে তার স্বামী একটি ব্যাগসহ কিছু স্বর্ণলংকরা কুড়িয়ে পেয়েছে দাবী করে স্বর্ণলংকারগুলি নিয়ে মিঠামইন এলাকার একটি দোকানে গেলে দোকানদার ও আশপাশের লোকজন তাকে ডাকাত সন্দেহে আটক করে মারধর করছে বলে জানায়। ঐ সময় অজ্ঞাতনামাদের একজন ঐ নারীর স্বামী সাজে এবং অপরজন দোকানদার সাজেন। পরে স্বামী পরিচয়দানকারী ব্যক্তি মোবাইলে ঐ নারীকে (দিলরুবা) বলে, তুমি এসে আমাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যাও। এ সময় ঐ নারী এত রাতে মিঠামইন যাওয়া সম্ভব দাবী করলে অজ্ঞাতনামারা দিলরুবার কাছে টাকাসহ যা স্বর্ণের গয়না যা রয়েছে তা নিয়ে পরদিন ১৩ ফেব্র“য়ারী সকালে হালুয়াঘাট উপজেলার নাগলা বাজারে যেতে বলে। দিলরুবা মোবাইলে অজ্ঞাতনামাকে স্বামী এবং অপরজনকে দোকনদার মনে করে তাদের কথামত ঐ নারী তার স্বামীকে মুক্ত করতে তার নিজ বাসা থেকে নগদ ৩৫ টাকা এবং তার ও তার পরিবারের সদস্যদের ব্যবহৃত স্বর্ণের প্রায় সাড়ে সাত ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার নিয়ে প্রতারকদের কথামত পরদিন ভোরে প্রথমে হালুয়াঘাটের নাগলা যান। এ সময় দিলরুবা আবারো ফোন দিলে প্রতারকচক্র ময়মনসিংহ-হালুয়াঘাট সড়কের উত্তরপাশে নাগলা ব্রীজের কাছে যেতে বলে। আটক স্বামীকে মুক্ত করতে দিলরুবা নামের ঐ নারী প্রতারকচক্রের কথামত নগদ টাকা ও বাসায় থাকা স্বর্ণালংকার নিয়ে নাগলা ব্রীজে যান। এ সময় অজ্ঞাতনামা প্রতারকচক্র দিলরুবার কাছ থেকে নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও সাথে থাকা প্রায় সাড়ে সাত ভড়ি স্বর্ণালংকা এবং তার হাতঘড়ি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

প্রতারিত নারী দিলরুবা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে এ ধরণের অভিযোগ করলে ডিবির ওসি শাহ্ কামাল আকন্দ প্রতারক চক্রকে সনাক্তকরণসহ তাদেরকে গ্রেফতার করতে চেষ্ঠা শুরু করেন। এক পর্যায়ে ডিবি পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রতারকচক্রকে সনাক্ত করতে সক্ষম হন। পরে ডিবি এলআইসি বিভাগের এসআই পরিমল চন্দ্র সরকার তার সহযোগীদের নিয়ে মঙ্গলবার হালুয়াঘাট এলাকায় অভিযান চালায়।

 

অভিযানকালে প্রতারক চক্রের মূল হোতা মোঃ আশরাফুলকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আশরাফুল ঈশ্বরগঞ্জের বালিহাটা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। বর্তমানে সে ফুলপুরে শ্বশুর বাড়ি বসবাস করছেন। এসআই পরিমল চন্দ্র সরকার বলেন, গ্রেফতারকৃত আশরাফুল পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে মোবাইলে প্রতারণার মাধ্যমে ঐ নারীর কাছ থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়া এবং ঘটনার সাথে আরো দুইজন জড়িত থাকার কথা স্বিকার করেছে। তবে আশরাফুল একজনের নাম প্রকাশ করলেও অপরজনের নাম প্রকাশ করেনি। পরে তার কথামত তার কাছ থেকে প্রতারণাকালে ব্যবহৃত সীম, মোবাইল সেটসহ প্রায় দুই ভড়ি স্বর্ণালংকার উদ্ধার করেছে।

HostGator Web Hosting