| |

সর্বশেষঃ

স্কাউটিংই পারে প্রজন্মকে সৃজনশীল করে গড়ে তুলতে : রাষ্ট্রপতি

আপডেটঃ ১২:৫৪ অপরাহ্ণ | মার্চ ১১, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর : ‘স্কাউটিংই পারে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে আধুনিক, প্রগতিশীল ও সৃজনশীল করে গড়ে তুলতে।’

গাজীপুরের মৌচাকে জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ১০ম বাংলাদেশ ও ৩য় সানসো স্কাউট জাম্বুরির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ একথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘স্কাউট আন্দোলন শিশু-কিশোরদের চারিত্রিক গুণাবলী বিকাশে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। লেখাপড়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে নিজেদেরকে সস্পৃক্ত করার মানসিকতা তৈরিতে স্কাউটিংয়ের ভূমিকা অনন্য।’

তিনি বলেন, ‘স্কাউটরা নিয়মিত সমাজ সেবামূলক কাজের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা ও আর্তমানবতার সেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে। প্রিয় মাতৃভূমিকে আরো সুন্দর করে গড়ে তুলতে স্কাউটরা রাখতে পারে অগ্রণী ভূমিকা। বিশেষ করে শিশু-কিশোর ও যুবদের মাদক, ধর্মান্ধতা, সাম্প্রদায়িকতা, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিষবাস্প থেকে নিরাপদ এবং দূরে রাখতে স্কাউটিং ইতিবাচক অবদান রাখতে পারে।’

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্য আয়ের ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিনত করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। সরকারের যুগোপযোগী পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশ ইতোমধ্যে নিম্ন মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে, পেয়েছে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার স্বীকৃতি। উন্নয়নের এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে নতুন প্রজন্মকে দক্ষ ও মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।’

তিনি বাংলাদেশের চলমান অগ্রযাত্রায় নেতৃত্বদানের জন্য আগামী প্রজন্মকে স্কাউটিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করতে আমি স্কাউট নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, ‘স্কাউটরা সৃষ্টিকর্তা ও দেশের প্রতি কর্তব্য পালন করতে এবং সর্বদা অপরকে সাহায্য করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে স্কাউট আন্দোলনে যোগদান করে। সামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড, বৃক্ষরোপণ, পরিবেশ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ, জলবায়ু উষ্ণতা রোধে জনসচেতনতা তৈরি, বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ভবনধস ও অগ্নিকান্ডের ঘটনায় উদ্ধার কাজসহ জাতীয় দুর্যোগে স্কাউটরা সবার আগে এগিয়ে আসে।’

তিনি স্কাউটদের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, ’তোমাদের এ সেবাধর্মী কার্যক্রম ভবিষ্যতে আরো বিস্তৃতি লাভ করবে বলে আমি আশা করি। তোমরাই আগামী দিনে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবে। তোমরাই জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত, উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণ করবে। এ জন্য তোমাদের যোগ্য ও দক্ষ হয়ে উঠতে হবে।’

অনুষ্ঠানে দুইজন বিদেশী স্কাউটার বয় স্কাউট অফ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ড্যান ওনবে ও নিউজিল্যান্ডের ফিলিপ রবার্টকে বাংলাদেশ স্কাউটসের সর্বোচ্চ অ্যাওয়ার্ড রৌপ্য ব্যাঘ্র প্রদান করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এছাড়াও ১০ম বাংলাদেশ ও ৩য় সানসো স্কাউট জাম্বুরী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি বিশেষ স্মারক ডাক টিকেট উন্মোচন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- ১০ম বাংলাদেশ ও ৩য় সানসো স্কাউট জাম্বুরির সাংগঠনিক কমিটির সভাপতি ও বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় কমিশনার (সংগঠন) আখতারুজ জামান খান কবির, জাম্বুরি চিফ ও প্রধান জাতীয় কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান ও জাম্বুরি উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি মো. আবুল কালাম আজাদ।

রাষ্ট্রপতি এ সময় স্কাউটদের অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান উপভোগ করেন এবং ক্যাম্প এলাকা ঘুরে দেখেন।

উল্লেখ, গাজীপুরের মৌচাকে জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে গত ৮ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এই জাম্বুরি চলবে আগামী ১৪ মার্চ পর্যন্ত। জাম্বুরিতে দেশ-বিদেশের প্রায় ১২ হাজার স্কাউট ছেলে-মেয়ে, স্বেচ্ছাসেবক ও কর্মকর্তা অংশগ্রহন করেছেন।

HostGator Web Hosting