| |

সর্বশেষঃ

বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুণগুলো শিশুদের কোমল মনে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান স্পিকারের

আপডেটঃ ৭:৪৫ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২০, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মানবিক গুণগুলো শিশুদের কোমল মনে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি আজ জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারীতে দেশরত্ন শেখ হাসিনা রচিত ‘আমার পিতা শেখ মুজিব’ অবলম্বনে ‘খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন’ গ্রাফিক্স বইয়ের প্রকাশনা ও এনিমেটেড ফিল্মের প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা জাতির জীবনে সব সময় আসে না। আমরা ধন্য যে বঙ্গবন্ধুর ন্যায় নেতা পেয়েছিলাম।’
স্পিকার বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনা রচিত ‘আমার পিতা শেখ মুজিব’ অবলম্বনে ‘খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন’ গ্রাফিক্স বই ও এনিমেটেড ফিল্ম প্রদর্শনী বঙ্গবন্ধুকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে সাহায্য করবে।
স্পিকার নিজ নির্বাচনী এলাকা পীরগঞ্জের প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন’ গ্রাফিক্স বই ও এনিমেটেড ফিল্ম প্রদর্শন এবং সংসদ গ্রন্থাগারে সংরক্ষণের উদ্যোগ নিবেন বলে তার আগ্রহের কথা জানান। তিনি বলেন, সব সংসদ সদস্য যাতে এ উদ্যোগ নেয় সে ব্যাপারেও তিনি ব্যবস্থা নিবেন।
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুক কর্নারে এ বই ও ফিল্ম সংরক্ষণের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, শুধু সংরক্ষণ নয় বইগুলো পড়তে শিক্ষার্থীদের আগ্রহী করে তুলতে কুইজ, বিতর্ক ও রচনা প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে শিক্ষকদেরকে এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন আপোষহীন নেতা। আজীবন অন্যায় ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে জনগণের মুক্তির লক্ষ্যে লড়াই সংগ্রাম করেছেন। বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ আমাদেরকে তার গভীর জীবনবোধ, রাজনৈতিক দর্শন এবং দেশ ও জনগণের প্রতি অপরিসীম ভালোবাসার কথাই মনে করিয়ে দেয় প্রতিনিয়ত।
স্পিকার বলেন, নদী, মাঁটি আর কাদাজল মেখে বেড়ে ওঠা খোকা ছিলেন অদম্য সাহসী আর প্রতিবাদী। বঙ্গবন্ধু ছিলেন সেই মহান নেতা যিনি ফাঁসির মঞ্চে দাঁড়িয়েও মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে ভয় পাননি। দেশের মানুষের প্রতি নিবিড় ভালোবাসা বঙ্গবন্ধুর আসন স্থায়ী করে রেখেছে প্রতিটি বাঙালীর হৃদয়ে।
এসময় তিনি জনগণের অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জন করে বাংলাদেশকে সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলার মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এম খালিদ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, পৃথিবীর কোন দেশেই জাতির পিতাকে নিয়ে বিতর্ক নেই। সেরকম বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে না এ ব্যাপারে কোন আপোষ চলবে না।
হাসুমণির পাঠশালার সভাপতি মারুফা আক্তার পপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম আল হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক জোনায়েদ হালিম।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিব বর্ষ’ উপলক্ষে হাসুমণির পাঠশালার উদ্যোগে দেশব্যাপী ‘আমার পিতা শেখ মুজিব উৎসব’ পর্যায়ক্রমে সারা দেশে পরিচালিত হবে।

HostGator Web Hosting