| |

সর্বশেষঃ

পৌর নির্বাচনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেলেন যারা

আপডেটঃ ২:৪৯ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ০২, ২০১৫

বিশেষ প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ প্রতিদিন : আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদেরকে মনোনয়নপত্র দেয়া শুরু করেছে বিএনপি। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকেই বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এ মনোনয়নপত্র দেয়া শুরু হয়।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বিকেল পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দেয়া হবে। আর যারা ইতোমধ্যে মনোনয়পত্র পেয়ে নিজ এলাকায় পৌঁছতে পেরেছেন তারা সংশ্লিষ্ট জেলা নির্বাচন কমিশন অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দেবেন।

বিএনপির পক্ষ থেকে যাদেরকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে তারা হলেন- পঞ্চগড় সদরে তৌহিদুল ইসলাম, ঠাকুরগাঁও সদরে মির্জা ফয়সাল আমিন, রাণীশংকৈলে শাহজাহান আলী, পীরগঞ্জে রাজিউর রহমান রাজু, দিনাজপুর সদরে জাহাঙ্গীর আলম, ফুলবাড়িতে সাইদুল ইসলাম, বীরগঞ্জে আমিনুল বাহার, বিরামপুরে আশরাফ আলী মন্ডল, হাকিমপুরে শওকত হোসেন শিল্পী; নীলফামারীর সৈয়দপুরে আমজাদ হোসেন সরকার, জলঢাকায় ফাহমিদ ফয়সাল চৌধুরী, লালমনিরহাট সদরে আবদুল হালিম, পাটগ্রামে এ কে মোস্তফা হালিমুজ্জামান, রংপুরের বদরগঞ্জে পরিতোষ চক্রবর্তী, কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে আদম আলী, উলিপুরে তারিক আবুল আলা চৌধুরী, গাইবান্ধা সদরে শহীদুজ্জামান শহীদ, গোবিন্দগঞ্জে ফারুক আহমেদ, সুন্দরগঞ্জে মশিউর রহমান সবুজ, কুড়িগ্রাম সদর নুরুল ইসলাম; বগুড়া সদরে অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান, শেরপুরে স্বাধীন কুডু, সারিয়াকান্দিতে টিপু সুলতান, গাবতলীতে সাইফুল ইসলাম, আদমদিঘীতে তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু, কাহালুতে আবদুল মান্নান ভাটা, ধুনটে আলিমুদ্দিন, নন্দীগ্রামে সুশান্ত কুমার শান্ত, শিবগঞ্জে আবদুল মতিন।

জয়পুরহাট সদরে সামসুল হক, কালাইয়ে সোহেল তালুকদার, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে শফিকুল ইসলাম, নাচোল মো. কামরুজ্জামান, নওগাঁর সদরে নাজমুল হক সনি, নজিপুরে আনোয়ার হোসেন, রাজশাহী কাকনহাটে হাফিজুর রহমান, আড়ানিতে তোজাম্মেল হক, মুন্ডমালায় ফিরোজ কবির, কেশরহাটে আলাউদ্দিন আলো, গোদাগাড়ীতে আনোয়ারুল চৌধুরী, তাহেরপুরে আবু নাঈম মোহাম্মদ শাসমুর রহমান মিন্টু, ভবানীগঞ্জে আবদুর রহমান প্রামানিক, তানোরে মিজানুর রহমান মিজান, কাটাখালীতে মাসুদ রানা, চারঘাটে জাকিরুল ইসলাম বিকুল, দুর্গাপুরে সাইদুর রহমান মন্টু, পুটিয়ায় বাবুল হোসেন লাল্টু, নৌহাটায় মকবুল হোসেন, নাটোর সদরে ইমদাদুল হক মামুন, গুরুদাসপুরে মশিউর রহমান বাবলু, সিংড়ায় শামীম আল রাজী, বড়াইগ্রামে ইসহাক আলী, সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুরে নজরুল ইসলাম, সদরে মোকাদ্দেস আলী, উল্লাপাড়ায় বেলাল হোসেন, রায়গঞ্জে নুর সাঈদ সরকার, বেলকুচিতে আবদুর রাজ্জাক মন্ডল, কাজীপুরে মাসুদ রায়হান মুকুল।

এছাড়া পাবনার চাটমোহরে আবদুর রহিম কালু, সাথিয়ায় সিরাজুল ইসলাম, সুজানগরে আজমল আলী বিশ্বাস, ফরিদপুরে এনামুল হক, ভাঙ্গুড়ায় মুজিবুর রহমান, সদরে নুর মোহাম্মদ মাসুম, ইশ্বরদীতে মোকলেসুর রহমান, মেহেরপুর গাংনীতে ইনসারুল হক, কুষ্টিয়া সদরে কুতুব উদ্দিন আহমেদ, মিরপুরে আবদুল আজিজ খান, কুমারখালীতে তরিকুল ইসলাম, খোকসায় রাজু আহমেদ ও ভেড়ামারায় জোটের শরিক দল জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) নেতা মহিউদ্দিনকে মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় মহিদুল ইসলাম, জীবননগরে নওয়াব আলী, আলমডাঙ্গায় মীর মহিউদ্দিন, সদরে খন্দকার আবদুল জব্বার, ঝিনাইদহের কোটচাদপুরে একেএম সালেহ উদ্দিন বুলবুল, মহেশপুরে নাজিবুদ্দৌলা, হরিনাকুন্ডে মো. জিন্নাতুল হক, শৈলকুপায় খলীলুর রহমান, যশোর নোয়াপাড়ায় রবিউল হোসেন, মনিরামপুরে শহীদ মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন, বাঘারপাড়ায় আবদুল হাই মোনা, চৌগাছায় সেলিম রেজা আউলিয়া, কেশবপুরে সামাদ বিশ্বাস, সদরে মারুফুল ইসলাম, মাগুরা সদরে ইকবাল আকতার খান, নড়াইল কালিয়ায় এসএম ওয়াহিদুজ্জামান, সদরে জুলফিকার আলী, খুলনা চালনায় শেখ আবদুল মান্নান, সাতক্ষীরা কলারোয়ায় আকতারুল ইসলাম, সদরে তাসকির আহমেদ, বরগুনা বেতাগীতে হুমায়ুন কবির, পাথরঘাটায় মল্লিক মো. আইয়ুব; পটুয়াখালী কুয়াকাটায় আবদুল আজিজ মুসল্লী, ভোলার বোরহান উদ্দিনে মনিরুজ্জামান, দৌলতখানে আনোয়ার হোসেন, সদরে হারুনুর রশীদ।

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে গিয়াসউদ্দিন দীপেন, বাকেরগঞ্জে মতিউর রহমান মোল্লা, উজিরপুরে শহীদুল ইসলাম, ঝালকাঠি নলছিটিতে মুজিবুর রহমান, পিরোজপুর স্বরূপকাঠিতে শফিকুল ইসলাম ফরিদ, সুনামগঞ্জ ছাতকে সামসুর রহমান মাসুক, সদরে অধ্যক্ষ সেরিগুন, ধিরাইয়ে মাইনুদ্দিন চৌধুরী; হবিগঞ্জ: নবীগঞ্জে সাবেরুল হক, কুমিল্লা দাউদকান্দিতে টিএমআই খলিল, চৌদ্দগ্রামে নয়ন বাঙ্গালি।

চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জে আবদুল মান্নান খান, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে আজমত আলী বাহাদুর, বাঁশখালীতে কামরুল ইসলাম হোসাইনী, সাতকানিয়ায় রফিকুল আলম, মীরসরাইয়ে রফিকুল ইসলাম পারভেজ, রাউজানে আবদুল্লাহ আল হাসান, বারইয়ারহাটে মাইনুদ্দিন লিটন, রাঙ্গুনিয়ায় হেলাল উদ্দিন, সীতাকুন্ডে আবুল মনসুর ও পটিয়ায় তহিদুল আলম।

এছাড়া চন্দনাইশে এলডিপির প্রার্থীর জন্য ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। খাগড়াছড়ি সদরে আবদুল মালেক ও মাটিরাঙ্গায় বাদশা মিয়া, বান্দরবান সদরে জাবেদ রাজা ও লামায় আমির হোসেন, রাঙামাটি সদরে সাইফুল ইসলাম ভুট্টোকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

এদিকে আসন্ন পৌর নির্বাচনে দলের মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে চূড়ান্তভাবে মনোনীতদের চিঠি দিয়েছে বিএনপি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ৭টার পর দলের চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয় থেকে পর্যায়ক্রমে এ চিঠি দেয়া হয়।

প্রথমে মনোনয়ন পান রাজশাহী বিভাগের অধীন পৌরসভা প্রার্থীরা। তবে ২৩৬টি পৌরসভার মধ্যে সবগুলোতে সমর্থন চূড়ান্ত করতে পারেনি দলটি। যাদের নাম চূড়ান্ত হয়েছে তারা ইতোমধ্যে সবুজ সংকেত পেয়ে গেছেন। তারা মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার জন্য প্রত্যয়নপত্র ছাড়া অন্যান্য প্রস্তুতি সম্পন্নও করেছেন।

এদিকে পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী চূড়ান্তের পাশাপাশি ঐক্যবদ্ধ থেকে দলের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে তৃণমূলে যাচ্ছে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিশেষ বার্তা। ওদিকে বিএনপির নির্বাচন সমন্বয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মনোনীতদের পাশাপাশি সব পৌরসভায় বিকল্প প্রার্থী রাখা হবে। যাতে দল মনোনীত কোনো প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল হলে বিকল্প প্রার্থী দলের প্রতিনিধিত্ব করতে পারেন। বিকল্প প্রার্থীদের কোন চিঠি দেয়া হবে না, তারা মাঠে থাকবেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে। প্রয়োজনে কেন্দ্রের তরফে তাদের ব্যাপারে স্থানীয় নেতাদের নির্দেশনা দেয়া হবে।

HostGator Web Hosting