| |

সর্বশেষঃ

ভালুকায় পুলিশ-শ্রমিকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, আহত ২৫

আপডেটঃ ৩:৪৮ অপরাহ্ণ | মে ২১, ২০১৯

ভালুকা প্রতিনিধি : ভালুকা উপজেলা মেহরাবাড়ি এলাকার লিও ফ্যাশন লি: এর শ্রমিকরা বকেয়া বেতনের দাবিতে মঙ্গলবার সকালে হাজীর বাজার সংলগ্ন এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক প্রায় দেড় ঘণ্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে, পুলিশ-শ্রমিকদের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ আন্দোলনকারী শ্রমিকদেরকে ছত্রভঙ্গ করার জন্য ৬০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। এতে ৩ পুলিশ সহ ২৫ শ্রমিক আহত হয়েছে।

আন্দোলনরত শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, লিও ফ্যাশন লি: একটি সোয়েটার ফ্যাক্টরিতে বিভিন্ন সেকশনে প্রায় দুই হাজার শ্রমিক কাজ করে। গত মার্চ মাস থেকে তিন মাস যাবত কোম্পানির মালিক পক্ষ শ্রমিকদেরকে বেতন না দিয়ে কাজ করাচ্ছে। চলতি মাসে প্রথম সপ্তাহ থেকে শ্রমিকরা কোম্পানির কর্তৃপক্ষের সাথে দফায় দফায় বৈঠক করে বেতন আদায় করতে পারেনি। সব শেষে গত ১৫ মে কোম্পানি বেতন দেয়ার কথা ছিল কিন্তু সেই তারিখেও মালিক পক্ষ শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ না করায় মঙ্গলবার সকালে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহা সড়ক বিদ্যুতের পিলার গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রথমে শ্রমিকদেরকে অবরোধ তোলে নেয়ার জন্য অনুরোধ করে। আর শ্রমিকরা দাবি করে তাদের তিন মাসের বকেয়া বেতন দেয়ার জন্য। শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশের লাঠি চার্জ ও ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে শ্রমিকদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পরে শিল্প পুলিশের উপস্থিত একমাত্র সহকারী পুলিশ সুপার নুরুন্নবী ও ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন কোম্পানির কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করে বুধবার দুপুরের মাঝে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধের সিদ্ধান্ত হয়। পরে মিল গেইটের সামনে পুলিশ ও মিল কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। সংঘর্ষে ভালুকা মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আবুল কালাম আজাদ, এএসআই ছালাম ও কনস্টেবল সুজাসহ অন্তত ২৫ শ্রমিক আহত হয়।

গত সোমবার রাতে সিডস্টোর বাজারে ব্যবসায়ী ও শিল্প পুলিশের মাঝে সংঘর্ষে ঘটনার প্রেক্ষিতে লিও ফ্যাশন মিলে শ্রমিক আন্দোলনের সময় একজন এএসপি ছাড়া শিল্প পুলিশের কোনো সদস্যকে দেখা যায়নি।

লিও ফ্যাশন লি: এর অ্যাডমিন ম্যানেজার আশরাফ উদ্দিন জানান, আমাদের কোম্পানিতে মোট ১৭টি সেকশন রয়েছে এর মাঝে মাত্র ৩টি সেকশনের শ্রমিকদের এক মাসের বকেয়া বেতন রয়েছে। সেই টাকা আগামী বৃহস্পতিবারের মাঝে আমরা দিয়ে দিবো বললেও শ্রমিকরা আমাদের কথা না শুনে সড়ক অবরোধ করেছে।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, মিল কর্তৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে বুধবার দুপুরের মাঝে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করা হবে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

HostGator Web Hosting