| |

সর্বশেষঃ

সংসদে শোক প্রস্তাব পাস

আপডেটঃ ৬:৪৫ অপরাহ্ণ | জুন ১১, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিগত দেড় মাসে ৫জন সাবেক এমপি হারিয়েছে জাতীয় সংসদ। এদের মধ্যে একজন সাবেক মন্ত্রীও আছেন। এরা হলেন সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক, সাবেক এমপি এবিএম তালেব আলী, আবদুল আলী মৃধা, মো. আব্দুল মজিদ মাস্টারও এ.কে.এম বজলুল করিম।

মঙ্গলবার জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন শুরুর পর এসব এমপির নামে শোক প্রস্তাব আনা হয়। পরে মরহুমদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়। এরপর তাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী মরহুমদের জীবনবৃত্তান্ত সম্বলিত শোকপ্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করেন। শোকপ্রস্তাবের অনুলিপি প্রত্যেক সংসদ সদস্যের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

এছাড়াও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানার ভাশুর ও বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিক আহমেদ সিদ্দিক, বিশিষ্ট নাট্যকার, নির্দেশক ও অভিনেতা অধ্যাপক মমতাজউদদীন আহমদ, একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী, একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি হায়াৎ সাইফ, একুশে পদকপ্রাপ্ত নজরুল সংগীতশিল্পী, গবেষক, স্বরলিপিকার ও সংগীতগুরু খালিদ হোসেন, কঙ্গোয় জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি রৌশন আরা, বিশিষ্ট কৌতুক অভিনেতা আনিসুর রহমান, নন্দিত অভিনেতা সালেহ আহমেদ এবং অভিনেত্রী মায়া ঘোষের মৃত্যুতে এ সংসদ গভীর শোক প্রকাশ করে সংসদ।

এছাড়াও ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে, রাশিয়ায় বিমান দুর্ঘটনায় এবং দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে মহান জাতীয় সংসদ গভীর শোকপ্রকাশ, সকল বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করে।

প্রসঙ্গত, সংসদের একটি অধিবেশন শুরুর সময় দেশ বিদেশের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি মারা গেলে তাদের নামে শোক প্রস্তাব আনা হয়। এর আগে দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়েছিল ২৪ এপ্রিল। মাত্র পাঁচ কার্যদিবস চলা এই অধিবেশন শেষ হয় ৩০ এপ্রিল।

HostGator Web Hosting