| |

সর্বশেষঃ

কোরবানির আগেই মসলার বাজারে অস্থিরতা

আপডেটঃ ৬:৩০ অপরাহ্ণ | জুন ১৮, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রস্তাবিত ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে সব মসলা পণ্যে ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

এতেই কোরবানির ঈদের বেশ দেরি থাকলেও অস্থির হয়ে উঠেছে দেশের মসলার বাজার। বাজেটের পর বাজারে সব ধরনের মসলার দাম কেজিপ্রতি সবোর্চ্চ ১০০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে গেছে।

সোমবার রাজধানীর কারওয়ানবাজার ঘুরে দেখা গেছে, জিরা, দারুচিনি, মিষ্টি জিরা, এলাচ, জয়ত্রী ও গোল মরিচের দাম বেড়েছে। এর মধ্যে জিরার দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি ১০ টাকা।

এলাচ, জয়ত্রী, দারুচিনি ও গোল মরিচের দাম কেজিপ্রতি ১০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, চলতি অর্থবছরে আমদানি করা গরম মসলায় ৬০ শতাংশ শুল্ক আরোপ আছে। এটা আসছে অর্থবছরে বহাল রেখে সঙ্গে মসলা আমদানিতে ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। এজন্যই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মসলার দর।

কোরবানির ঈদের সময় এগিয়ে এলে দাম আরও বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

কারওয়ানবাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিকেজি এলাচ ২ হাজার ৩০০ থেকে ২ হাজার ৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অথচ গত বৃহস্পতিবারও প্রতিকেজি এলাচ বিক্রি হয়েছে ২ হাজার ২৫০ টাকায়।

একইভাবে বাজেটের পর জয়ত্রীর দাম কেজিতে ১০০ টাকা বেড়ে ২ হাজার ৪৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। জিরা মানভেদে ১০-১৫ টাকা বেড়ে ৩২০-৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মিষ্টি জিরা ২০ টাকা বেড়ে ১৩০-১৪০ টাকায়, গোল মরিচ কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে ৩৭৫ টাকায়, দারুচিনি কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে ৩২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কারওয়ানবাজারের মসলা ব্যবসায়ী আলাউদ্দিন বলেন, অর্থমন্ত্রী বাজেটে মসলা আমদানিতে ভ্যাট বসিয়েছেন। এই খবরে মসলার দাম বাড়ছে। কোরবানির ঈদ ঘনিয়ে আসলে দাম আরও বাড়বে।

HostGator Web Hosting