| |

সর্বশেষঃ

বৃষ্টিতে অচল মুম্বাই, নিহত বেড়ে ৩৭

আপডেটঃ ১:৪৩ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৩, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গত দুই দিনের একটানা বৃষ্টিতে পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে ভারতের বাণিজ্যিক নগরী মুম্বাইয়ের জীবনযাত্রা। শহরের বেশিরভাগ এলাকাই পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে মহারাষ্ট্রে নিহত হয়েছে ৩৭ জন। এদের মধ্যে কেবল মুম্বাইয়েই প্রাণ হারিয়েছেন ২১ জন।

গত রবিবার থেকে শুরু হওয়া ভারী বর্ষণে ভেঙে পড়েছে শহরের রেল, সড়ক ও বিমানসহ সব ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা। বাতিল হচ্ছে একের পর এক ট্রেন ও বিমান। রেলপথকে মুম্বইয়ের অন্যতম ‘লাইফলাইন’ বলা হয়। বিভিন্ন জায়গায় রেললাইন পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় বিপর্যস্ত রেল যোগাযোগ।

অতি বৃষ্টির কারণে মঙ্গলবার মুম্বাইয়ে একদিনের সরকারি ছুটি ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছিলো প্রশাসন। বাতিল হয়েছে মুম্বই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএসসি-র পরীক্ষা। মুম্বই সংলগ্ন এলাকাতেও কাজকর্ম এক রকম বন্ধ। খুব প্রয়োজন ছাড়া লোকজনকে বাইরে বেরোতে নিষেধ করা হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের অনেকে বাড়ি থেকে কাজ করছেন।

মুম্বাইয়ে বৃষ্টিপাত কমার কোনো সম্ভাবনাই দেখা যাচ্ছে না। আগামী ৪ ও ৫ জুলাই শহরের থানে ও পালঘরে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া ৩ থেকে ৫ জুলাই বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দিনে গড়ে ২০০ মিলিমিটার বা তারও বেশি বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাষে বলা হয়েছে।

হিন্দু চরমপন্থি দল শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের বাড়ির বাইরে এখন হাঁটুজল। এই নিয়ে শিবসেনা-বিজেপি-র সরকারের তীব্র সমালোচনায় নেমেছে বিরোধী দল কংগ্রেস।

দলের মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, ‘গত ২৫ বছর ধরে উদ্ধত, দুর্নীতিগ্রস্ত এবং অযোগ্য বিজেপি-শিবসেনা সরকার বৃষ্টির মৌসুমে মুম্বাইকে পথে বসিয়েছে। ২১ জন মারা গেল। ওরা কি এর দায় নেবে?’

মুম্বাই শহরতলি মালাদে’তে সোমবার রাত দু’টো নাগাদ একটি স্কুলের দেওয়াল ভেঙে নিহত হয় ২১ জন। আহত হয়েছেন আরো ৭৮ জন। হতাহতরা সবাই ওই স্কুল সংলগ্ন কুঁড়েঘরগুলোর বাসিন্দা। মৃতদের পরিবারের জন্য ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সরকার।

মালাডে জলের মধ্যে এসইউভি-তে আটকে গিয়ে মারা গেছে আরো দু’জন। ভিলে পার্লে এলাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যক্তি এবং মুলুন্দে দেওয়াল ধসে এক নিরাপত্তা রক্ষীর মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার রাতে পুণের অম্বেগাঁওয়ে দেওয়াল ধসে ছ’জন শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছেন, আহত হয়েছেন তিনজন। ঠাণে জেলার কল্যাণে মঙ্গলবার দেওয়াল ধসে একই ভাবে মারা গিয়েছেন আরও তিন জন। কল্যাণে দুর্গাই ফোর্টের পিছনে গত কাল রাত একটা নাগাদ উর্দু স্কুলের দেয়াল ভেঙে পড়ে।

সূত্র: আনন্দবাজার

HostGator Web Hosting