| |

সর্বশেষঃ

টাঙ্গাইল লৌহজং নদী দখল ও দূষণের মুখে

আপডেটঃ ১:৪০ অপরাহ্ণ | জুলাই ১০, ২০১৯

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইল শহরের বুক চিরে বয়ে গেছে লৌহজং নদী। উৎসমুখে বাঁধ, দখল ও দূষণে এক সময়ের ক্ষর¯্রােতা লৌহজং আজ প্রায় মৃত। নদী পরিণত হয়েছে ভাগাড়ে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিগত ২০১৬ সালে শহর এলাকায় নদীর পাশে অবৈধ দখল উচ্ছেদ ও খননের কিছুটা কাজ করা হলেও আবার বন্ধ হয়ে গেছে। তবে নদীটি রক্ষা করে তার প্রবাহমানতা ফিরিয়ে আনার দাবি করেছেন এলাকাবাসী। টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন অতিদ্রুত লৌহজং রক্ষার কাজ শুরু হবে। এক সময় গুরুত্বপূর্ণ এই লৌহজং এর উপর অনেকাংশে নির্ভর করে গড়ে উঠে টাঙ্গাইলের যোগাযোগ ও ব্যবসা-বাণিজ্য।

জানা যায়, লৌহজং বাংলাদেশের উত্তর কেন্দ্রীয় অঞ্চলের টাঙ্গাইল ও গাজীপুর এলাকার প্রধান নদী। যার দৈর্ঘ্য ৭৬ কিলোমিটার, প্রস্থ ৪০ মিটার ও প্রকৃতি সর্পিলাকার। পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রদত্ত নদী পরিচিতি নং ৫৪। পূর্ব দিক থেকে প্রবাহিত হয়ে সরাসরি দক্ষিণে বাঁক নেয়া নদী অববাহিকার আয়তন ১০৪ বর্গ কিলোমিটার। যা শহরের দিঘুলীয়া, কলেজপাড়া, কাগমারা, আকুর টাকুর পাড়া, বেড়াডোমা, কাগমারী ও কাজীপুরসহ টাঙ্গাইলের প্রায় ১০-১২ কিলোমিটার এলাকা দিয়ে বয়ে গেছে। টাঙ্গাইলের ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্রমবিকাশ, অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে লৌহজং নদীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। জনপদ সৃষ্টি ও সম্প্রসারণেও রয়েছে লৌহজং নদীর অবদান। এক সময়ের প্রমত্তা লৌহজং নদী ছিল ব্যবসা বাণিজ্য ও যাতায়াতের প্রধান পথ। নদীটি সংযোগ স্থাপন করেছিল ঢাকার সাথে কলকাতার। যমুনা ও ধলেশ্বরী নদী হয়ে লৌহজং দিয়ে ব্যবসায়ীরা কলকাতা থেকে টাঙ্গাইল হয়ে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ যেতেন। জনশ্রুতি রয়েছে এই পথে লঞ্চ, স্টীমারসহ বড় বড় নৌকা অহরহ যাতায়াত করতো।

টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম বলেন, লৌহজং এর অবস্থা বর্তমানে খুবই শোচনীয়। নদী দখল ও দুষণের কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, টাঙ্গাইলের নদী রক্ষায় ইতোমধ্যে আমাদের একটি মিটিং হয়েছে। লৌহজং রক্ষায় সার্ভের কাজ চলছে। প্রসাশনের সাথে সমন্বয় করে পানি উন্নয়ন বোর্ড যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল এলজিইডি এর নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম আযম বলেন, এলজিইডি’র একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে প্রধান করে লৌহজং নদী রক্ষায় একটি প্রকল্প নেয়া হয়েছে। সেটা পৌরসভার সমন্বয়ে কাজ করা হবে।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম বলেন, লৌহজং টাঙ্গাইলের একটি গুরুত্বপূর্ণ পুরনো নদী। টাঙ্গাইল শহর গড়ে উঠার পেছনে এই নদীর অনেক অবদান রয়েছে। কিন্তু দখল-দুষণসহ বিভিন্ন কারণে নদীটির অবস্থা খুবই শোচনীয়। লৌহজং রক্ষায় অবৈধ দখল উচ্ছেদ, খনন ও সৌন্দর্যবর্ধনসহ সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক কাজ শুরু হবে। এতে নদীর প্রবাহমানতা ফিরে পাবে এবং নদী এলাকার মানুষ সুন্দর পরিবেশের সাথে বসবাস করতে পারবে।

HostGator Web Hosting