| |

সর্বশেষঃ

ঈশ্বরগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় পিতা-পুত্রসহ ৩ জন নিহত আহত ৪ জন

আপডেটঃ ৬:৩২ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৪, ২০১৯

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : ময়মনসিংহের ঈশ^রগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় পিতা পুত্রসহ ৩ জন নিহত ও ৪ জন আহত হয়েছেন। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে আটটায় উপজেলার বড়হিত ইউনিয়নের কাঠালডাংরী গ্রামে এ হতাহতের ঘটনাটি ঘটে। সরেজমিন গিয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তিনমাস পূর্বে ওই গ্রামের হাবুলের পুত্র মিজান (৮) স্থানীয় একটি জামে মসজিদের চালে উঠায় প্রতিবেশি হাসিম উদ্দিন তাকে চড় মারেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে এবং উভয় পক্ষ থানায় মামলা করে। প্রতিবেশি প্রবাসী হারুন বিবদমান দুপক্ষ হাসিম ও হাবুলের পিতা রাশিদের মামলা মিমাংসা করার জন্য বুধবার সকাল ৮টায় শালিস বৈঠকের উদ্যোগ নেন। বৈঠক শুরু হওয়ার আগেই হাসিম এর পুত্র জহিরুল তার মুরগির খামারে পানি দিতে গেলে রাশিদ ও তার পরিবারের লোকজন সশস্ত্র অবস্থায় তাকে আক্রমণ করে। এ সময় পিতা হাসিম উদ্দিন (৬০) তার পুত্রকে রক্ষা করতে গেলে তাকেও রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় প্রতিপক্ষ রাশিদের পুত্র আজিবুল (৩২)ও গুরুতর জখম হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তারা মারা যান। এ ঘটনায় আরো গুরুতর আহত হয় সংঘর্ষে নিহত হাসিমের পুত্র মাজহারুল (২৫) খায়রুল (৩০) মেয়ে রোকসানা (২০) ও পুত্রবধূ পপি (২৫) । তাদেরকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে মেয়ে রোকসানার অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) এস এ নেওয়াজি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সার্কেল শাখের হোসেন সিদ্দিকী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। হৃদয় বিদারক এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়। এ সময় ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি উপস্থিত জনগণকে শান্ত থাকার জন্য বলেন এবং ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করার আহবান জানিয়ে বলেন এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে বিচার নিশ্চিত করা হবে। এ ঘটনায় ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে আ: রশিদের জামাতা রুহুল আমিনকে আটক করেছে ।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি।

HostGator Web Hosting