| |

সর্বশেষঃ

এবারের বন্যায় ক্ষতি কম হয়েছে : কৃষিমন্ত্রী

আপডেটঃ ৫:০৪ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৮, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার সঙ্গে তৎকালীন সেনা কর্মকর্তা ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান প্রত্যক্ষভাবে জড়িত বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। আইনমন্ত্রী থাকাকালে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারে পদক্ষেপ না নেওয়ায় তাকে ‘এ যুগের শয়তান’ বলেও আখ্যা দেন ড. রাজ্জাক।

রোববার (১৮ আগস্ট) সচিবালয়ে কর্মকর্তাদের সঙ্গে ঈদুল আজহা পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, বঙ্গবন্ধুকে ষড়যন্ত্র করে হত্যা করা হয়। জিয়াউর রহমান সরাসরি বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন। এটি ছিল একটি প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ। বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার যে চেতনা, সেটি ধ্বংস করে পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক সৃষ্টি করা এ হত্যাকাণ্ডের কারণ ছিল। বঙ্গবন্ধুর অনেক হত্যাকারী বিভিন্ন দেশে পালিয়ে আছে। ১৯৭৫-এ যে অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর তা পূরণে কাজ করে সেই সরকার।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদকে ‘এ যুগের শয়তান’ আখ্যা দিয়ে ড. রাজ্জাক বলেন, ‘ব্যারিস্টার মওদুদ হলেন এদেশের ‘ইভিল জিনিয়াস’ শয়তান। এ শয়তানদের জন্য দেশটা পিছিয়ে গেছে। মওদুদ যখন আইনমন্ত্রী ছিলেন, তখন বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করেননি। আইন করে বিচার বন্ধ করার পর সে আইন বাতিল করা হয়, তবু এই হত্যাকাণ্ডের বিচার হয়নি (বিএনপি সরকারের সময়)।

আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরামের এ নেতা বলেন, যে আদর্শে দেশ স্বাধীন হয়েছিল, সেটি ধরে রাখলে দেশ এগিয়ে যেতো। সেজন্য আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় থাকতে হবে তা নয়। সবার জন্য ন্যায়ভিত্তিক সমাজ গড়ে তুলতে হবে।

ঈদযাত্রা প্রসঙ্গে ড. রাজ্জাক বলেন, ঈদযাত্রায় সারাদেশে যাতায়াতে কিছু সমস্যা হয়েছে। তারপরও বাংলাদেশের মানুষ সবকিছুর মধ্যেই আনন্দ করে। সাধারণ মানুষ এর সঙ্গে অভ্যস্ত। তারা এটি মোকাবেলা করে। এর ফলে তাদের আনন্দে ঘাটতি থাকে না। নানা সমস্যার মধ্যেই কাজ করতে হয়। ঈদে যাতায়াতে টাঙ্গাইলে ১০ ঘণ্টা লেগেছে যেতে। অনেকেই এই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন। কিন্তু আশা করি সবারই ঈদ ভালো হয়েছে।

দেশের বন্যার পরিস্থিতি নিয়ে তিনি বলেন, বন্যা বাংলাদেশের জন্য কল্যাণ বয়ে আনে, আবার ক্ষতি করে। আমাদের বাজেট ১২০ কোটি টাকা। আগে ফসল ছিল বৃষ্টিনির্ভর। সবমিলিয়ে যে বৃষ্টি হয়ে তা নিয়েই আমাদের পানির স্তর যথেষ্ট। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন কৃষির জন্য টাকার কোনো অভাব হবে না। আর বেশি টাকা লাগলেও দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

চাল রপ্তানির বিষয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ফিলিপাইনে চালের দাম বেশি ছিল। তারা চাল আমদানি করেছে প্রায় ১৪ লাখ মেট্রিক টন। ফলে সেখানে চালের দাম কমে গেছে। এখন সে দেশের সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চাল রপ্তানি করবে। আমরা চাল রপ্তানি করলে কঠিন অবস্থার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। সেজন্য সেদিকে নজর রাখতে হবে।

HostGator Web Hosting