| |

সর্বশেষঃ

বৃহস্পতিবার ৭ নভেম্বর : মুক্তিযোদ্ধা সৈনিক হত্যা দিবস

আপডেটঃ ১১:৪৮ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০৬, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামীকাল ৭ নভেম্বর। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি দিবসটি মুক্তিযোদ্ধা সৈনিক হত্যা দিবস হিসেবে এবং জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ দিনটি ‘সিপাহী-জনতার অভ্যুত্থান’ দিবস হিসেবে পালন করবে।
সিপাহী বিপ্লবের নামে এদিন থেকে শুরু হয় মুক্তিযোদ্ধা সেনা সদস্যদের হত্যা প্রক্রিয়া। ১৯৭৫ সালের এদিনে সিপাহী বিপ্লবের নামে প্রথমে হত্যা করা হয় তিন খ্যাতনামা মুক্তিযোদ্ধাকে। এরা হলেন, খালেদ মোশাররফ বীর উত্তম, কে এন হুদা বীর উত্তম এবং এটি এম হায়দার বীর বিক্রম। দশম বেঙ্গল রেজিমেন্টের সদর দপ্তরে অবস্থানকালে সকালে তাদের একেবারে কাছ থেকে গুলি করে হত্যা করে কোম্পানি কমান্ডার আসাদ এবং জলিল।
সাংবাদিক অ্যান্থনি ম্যাসকারেনহ্যাস এ ব্যাপারে লিখেছেন, ‘এছাড়াও এদিন উচ্ছৃঙ্খল জওয়ানরা একজন মহিলা ডাক্তারসহ ১৩ জন সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করে। এমন কি একজন সেনা কর্মকর্তার স্ত্রীকেও এ সময় হত্যা করা হয়।’
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল -জাসদ আগামীকাল সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ শহীদ কর্ণেল তাহের মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে। জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি, সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপিসহ জাসদ কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখবেন।
খালেদ মোশাররফ ট্রাস্ট আগামীকাল সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা আকরাম খাঁ হলে সংবাদ সন্মেলন এবং ‘অভিমত প্রকাশ’ এর আয়োজন করেছে। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করবেন খালেদ মোশাররফ এর জেষ্ঠ কণ্যা ও সাবেক সংসদ সদস্য মাহজাবিন খালেদ।

HostGator Web Hosting