| |

সর্বশেষঃ

বানোয়াট তথ্যে এমপিওভুক্ত হলে ব্যবস্থা : শিক্ষামন্ত্রী

আপডেটঃ ৫:২৯ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১৪, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : বানোয়াট তথ্য দিয়ে এমপিওভুক্তির তালিকায় স্থান পেয়েছে এমন তথ্য পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘শুধুমাত্র সঠিক তথ্য থাকলেই এমপিওভুক্তির আদেশ কার্যকর হবে।’

সোমবার (১১ নভেম্বর) এমপিওভুক্তি নিয়ে দেশের সব সংসদ সদস্যের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী।

জানা গেছে, নীতিমালা অনুসারে প্রথম দফায় চলতি বছর (২৩ অক্টোবর) ২ হাজার ৭৩০ ও ২য় দফায় মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) আরও ৬টি প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির আদেশ জারি করা হয়। তবে, আদেশে শর্ত হিসেবে বলা হয়েছিল, যেসব তথ্যের আলোকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এমপিওভুক্ত করা হয়েছে, পরবর্তীতে কোনো তথ্য ভুল বা অসত্য হলে তথ্য দেয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সে প্রেক্ষিতে নতুন এমপিওভুক্ত হওয়া প্রতিষ্ঠানের তথ্য যাচাই-বাছাই করতে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। স্কুল ও কলেজের দেয়া তথ্য যাচাই-বাছাই করতে গঠিত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. গোলাম ফারুককে। ২০ কর্মদিবসের মধ্যে তারা সঠিকতা যাচাই করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পাঠাবে।

উল্লেখ্য, সোমবার (১১ নভেম্বর) সংসদ সদস্যদের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। চার পৃষ্ঠার চিঠির সাথে ২৬টি প্রতিষ্ঠানের নাম ও এমপিওভুক্তির যৌক্তিকতাসহ বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেছেন তিনি।

চিঠিতে শিক্ষামন্ত্রী জানান, এমপিওভুক্তির জন্য বাছাইকৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনীয় তথ্যাদি যেমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা, পরীক্ষার্থীর সংখ্যা, পাসের হার ও স্বীকৃতির মেয়াদ সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষা বোর্ড এবং ব্যানবেইস কর্তৃক সরবরাহ করা হয়েছে। এসব তথ্যের মধ্যে কোনো ভুল প্রমাণ হলে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং প্রদানকৃত তথ্যের সঠিকতা পাওয়া সাপেক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির আদেশ কার্যকর করা হবে। এমপিওভুক্তির তালিকায় ভুল নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে ‘বিভ্রান্ত’ না হওয়ারও অনুরোধ করেছেন মন্ত্রী।

HostGator Web Hosting