| |

সর্বশেষঃ

  • মুজিব বর্ষ

মধ্যপ্রাচ্যের ৯ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বসবেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেটঃ ৫:০৫ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১২, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরকালে মধ্যপ্রাচ্যের নয়টি দেশে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এছাড়া ‘জায়েদ সাসটেইনেবিলিটি অ্যাওয়ার্ড’ ও ‘আবুধাবি সাসটেইনেবিলিটি উইক’ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

রোববার (১২ জানুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এ তথ্য জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স ইউনিটের প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) খুরশেদ আলম।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার বিকেল ৫টায় আবুধাবির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন। ক্রাউন প্রিন্স শেখ মুহম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের আমন্ত্রণে সেখানে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

ড. মোমেন জানান, ‘আবুধাবি সাসটেইনেবিলিটি উইক’ অনুষ্ঠানে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ৩০-৪০ হাজার মানুষ অংশ নেয়। একইসঙ্গে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক রাষ্ট্রপ্রধান, সরকারপ্রধান এবং মন্ত্রীরাও অংশগ্রহণ করেন। এবারের আবুধাবি সাসটেইনেবিলিটি উইকের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে- জ্বালানি, জলবায়ু পরিবর্তন, পানি, অভিগমন, মহাশূন্য, জৈবপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে কারিগরি জ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রভাব এবং জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন।

বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে সংযুক্ত আরব আমিরাত স্বাস্থ্য, খাদ্য, জ্বালানি, পানি ও শিক্ষা ক্ষেত্রগুলোতে উদ্ভাবনী এবং অনুপ্রেরণা সৃষ্টিকারী প্রয়াসের জন্য ‘জায়েদ সাসটেইনেবিলিটি অ্যাওয়ার্ড’ দিচ্ছে। এ পর্যন্ত পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের ৭৬ জনকে তাদের উদ্ভাবনী অবদানের জন্য এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল মাখতুম, আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মুহম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের স্থপতি প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতির স্ত্রী শেখ ফাতিমা বিনতে মুবারকের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সফরকালে বাংলাদেশ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদারকরণের লক্ষ্যে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও দুই দেশের দূতাবাসের জমি বিনিময় নিয়ে দু’টি চুক্তি সই হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রীর সফরের সময় ১৩ জানুয়ারি পশ্চিম এশিয়া অঞ্চলে অবস্থিত দেশের মধ্যে বাহরাইন, ইরান, ইরাক, কুয়েত, লেবানন, ওমান, কাতার, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূতদের অংশগ্রহণে একটি ‘রাষ্ট্রদূত সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাষ্ট্রদূতরা মিশনগুলোর প্রাধিকারভুক্ত কার্যাবলী, কর্মপরিকল্পনা- বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকী উদযাপন, অর্থনৈতিক কূটনীতি, মধ্যপ্রাচ্য থেকে বাংলাদেশে বিনিয়োগ আকর্ষণ ও বৃদ্ধি, দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য, অভিবাসন, মুসলিম দেশগুলোর সঙ্গে আন্তঃসংস্থা সহযোগিতা উন্নয়ন, প্রবাসী বাংলাদেশিদের কল্যাণ ইত্যাদি বিষয় উপস্থাপন করবেন।

সম্মেলনে রাষ্ট্রদূতরা সংশ্লিষ্ট দেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সুযোগ এবং বিভিন্ন অভিলক্ষ্য অর্জনের ক্ষেত্রে বিদ্যমান বাধা-বিপত্তির ব্যাপারেও অবহিত করার সুযোগ পাবেন। ‘রাষ্ট্রদূত সম্মেলন’র মাধ্যমে মিশনপ্রধানরা সরকারের প্রাধিকারমূলক ক্ষেত্রগুলোতে যথাযথ দিকনির্দেশনা গ্রহণের সুযোগ পাবেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আরব আমিরাত সফরকালে দেশটিতে বাংলাদেশের শ্রমশক্তি রপ্তানির বিষয়ে আলোচনা হবে।

HostGator Web Hosting