| |

সর্বশেষঃ

  • মুজিব বর্ষ

গুমের বিচার করবে বিএনপি : মির্জা ফখরুল

আপডেটঃ 6:08 pm | April 07, 2016

ঢাকা প্রতিবেদক : বিগত কয়েক বছরে দেশে গুম ‘চরম আকার’ ধারণ করেছে দাবি করে ভবিষ্যতে এসব গুমের ঘটনার বিচার করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রাজধানীতে বৃহস্পতিবার এক দোয়া মাহফিলে তিনি বলেন, ‘গুম হচ্ছে সবচেয়ে বড় মানবতাবিরোধী অপরাধ। গত কয়েক বছরের দেশে যেভাবে গুমের ঘটনা ঘটেছে অতীতে কখনো মানুষ তা দেখেনি। এ যেন মধ্যযুগীয় বর্বরতা। কেউই আইনের উর্ধ্বে নয়। একদিন না একদিন এসব ঘটনার বিচার করা হবে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপির নেতা সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর চৌধুরী আলমকে গুম করার মাধ্যমে এই গুমের সংষ্কৃতি শুরু হয়েছে। এরপর ইলিয়াস আলীসহ অসংখ্য নেতা-কর্মী গুম হয়েছেন। প্রায় ৫০০ জনেরও অধিক বিএনপির নেতা-কর্মীদের গুম করা হয়েছে।’

“তাদের অপরাধ, তারা জনগণের বাকস্বাধীনতা, হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং মৌলিক অধিকার রক্ষার জন্য আন্দোলন করেছে”- বলেন বিএনপির এই নেতা।

ছাত্রদল নেতা আমিনুল ইসলাম জাকিরের ‘নিখোঁজ’ হওয়ার একবছর উপলক্ষে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ছাত্রদল এর আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গণতন্ত্রের জন্য আন্দোলন করায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে তাকে আদালত পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়েছে। গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত অসংখ্য নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে। কেউ শান্তিতে নেই। সারাদেশে অস্বাভাবিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে।’

এই অবস্থা থেকে পরিত্রান পেতে দেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘একটি গুমবিহীন রাষ্ট্র পেতে হলে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন ফিরিয়ে আনতে হবে। সরকারকে বাধ্য করতে হবে একটি অবাধ নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে।’

লক্ষ্য পূরনে নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল।

সোহাগী জাহান তনু হত্যাকান্ডের বিচারের অগ্রগতি না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এখন পর্যন্ত তনু হত্যার কোনো কিছুই হলোনা। পত্রিকা খুললেই হত্যা আর হত্যার খবর। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। এজন্য ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ‘ঐতিহ্য অনুযায়ী’ অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

এক বছরেরও বেশি সময় ছাত্রদল নেতা আমিনুল ইসলাম জাকিরের ‘নিখোঁজ’ হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, গত বছর সরকারবিরোধী আন্দোলন চলাকালে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। জানিনা সে বেঁচে আছে না কি বেঁচে নেই। তার স্বজনরা তার পানে চেয়ে আছে। এভাবে বিএনপির অনেক নেতা-কর্মীর পরিবার তাদের স্বজনদের ফিরে আশার প্রত্যাশায় দিন গুনছে।

দোয়া মাহফিলে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সালাম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

HostGator Web Hosting