| |

সর্বশেষঃ

  • মুজিব বর্ষ

রৌমারীতে প্রতিমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে বাঁধের কাজ চলমান ১০ হাজার পারিবার ও ১০ ফসলি জমি রক্ষা

আপডেটঃ 2:15 pm | June 23, 2020

শওকত আলী মন্ডল, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : গত ২০১৯ সালের ভয়াবহ বন্যায় ফৌজদারী পানি ব্যাবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিঃ এর আওতাভূক্ত রৌমারী থানা মোড় হইতে চাক্তাবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত বাঁধটির বালিয়ামারী আব্দুস সামাদ ক্যাশিয়ারের বাড়ির পেছনে প্রায় ১১০ ফুট জায়গা পানির তোরে ভেঙ্গে গিয়ে এলাকার ১০ হাজার জমির ফসল ডুবে যায় এবং আনুমানিক ১০/১২ হাজার পরিবার পানি বন্দি হয়ে পরে। ইহাতে এলাকার সংযোগকারী রাস্তাসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।
বাঁধের ভাঙ্গাটি পুনঃ সংস্কারের ফৌজদারী পানি ব্যাবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিঃ পানি সম্পদ বিভাগকে বারবার তাগিদ দেওয়া স্বত্বেও কোন ফলপ্রসু হয়নি। পানি সম্পদ বিভাগ বিষয়টিকে গুরুত্ব না দেওয়ায় এলাকার আরো ব্যাপক ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দিলে সমিতির সদস্যগণ প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেনের স্বরনাপন্ন হন। প্রতিমন্ত্রী ঘটনাস্থল সরেজমিনে পরিদর্শন করে সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম মাষ্টারকে গর্তটি ভরাট এবং সংস্কারের জন্য নির্দেশ দেন। সমিতির সভাপতি প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশকে অমান্য করলে পরবর্তিতে নজরুল ইসলাম সাবেক সাধারণ সম্পাদক পানি সম্পদ ব্যাবস্থাপনা লিঃকে গর্ত ভরাট ও পুনঃ সংস্কারের জন্য বরাাদ্দ দিতে চাহিয়া কাজ করতে অনুমতি প্রদান করেন। সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী কাজটি শুরু করেন। ভাঙ্গাটি পুরণে প্রায় ৫৫ হাজার মাটি লাগবে বলে এলজিইডি রৌমারী জানিয়েছেন। বর্তমানে বরাদ্দের অভাবে কাজটির মাটি ভরাটের শ্রমিকদেরকে অর্থ প্রদানে যেমন হিমশীম খাচ্ছেন তেমনি কাজটি ধীরগতিতে চলছে। বন্যা প্রায় আগত কাজটি সম্পাদন করতে দ্রুত বরাদ্দ প্রদান করা আবশ্যক। তানা না হলে বন্যায় পুনঃরায় অত্র এলাকাবাসী ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখিন হবে।

HostGator Web Hosting