| |

সর্বশেষঃ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে ভাবছে সরকার

আপডেটঃ 4:31 pm | February 22, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে ভাবছে সরকার। এজন্য ৫-৬ দিনের মধ্যে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি বলেছেন, “এটা আলোচনা হয়েছে। এটা নিয়ে বেশ ভালো আলোচনা হয়েছে। এটা শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে এর মধ্যেই বসে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ডেকে নিয়ে আলোচনা করে একটা সিদ্ধান্তে আসতে বলা হয়েছে। প্রথমত হলো প্রিভিউ করা খুলবো কি না? এবং কখন খুলবো দ্রুত খোলা যায় কিনা? এবং কি পদ্ধতিতে খোলব, যাতে সেফটিও ঠিক থাকে সাথে সাথে লেখাপড়াও হয়।”

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। এর আগে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি বৈঠকে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈঠকে শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এসব কথা বলেন।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে বলেন, “এতোদিন হয়ে গেছে ইংল্যান্ড ছাড়া ইউরোপের অন্যান্য দেশে স্কুল কলেজ খোলাই আছে ভার্চুয়ালি। সেই সব দৃষ্টিকোন থেকে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন আপনারা বসে চিন্তাভাবনা করেন- যে আপনারা খুলে দিতে পারবেন কিনা?

কাঙ্ক্ষিত কোন তারিখ আছে কিনা জানতে চাইলে বলেন, “কোন তারিখ দেওয়া হয় নাই। তবে গ্রামে গঞ্জে দেখা যাচ্ছে ছেলে মেয়েরা খুব ফ্রিলি মুভ করছে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন শিক্ষক কর্মচারীদের ভ্যাকসিনটা কনফর্ম করতে হবে।”

হল খুলে দেওয়ার বিষয়ে বলেন, “আলোচনা হয়েছে তবে নির্দিষ্ট করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠান নিয়ে না, বিশেষ করে যারা রেসিডেন্সিয়াল তাদের সেফটিটা সব থেকে বড় ঝুঁকির বিষয়। তাদের কিভাবে নিরপত্তা নিশ্চিত করে- স্কুল কলেজ খোলা যায় সেটা দেখার জন্য বলা হয়েছে।”

তিনি বলেন, “আমরা এই সপ্তাহে না হলে আগামী রোববার বা সেমবারের মধ্যে বসে যাবো।।বসে একটা সিদ্ধান্ত হবে। বিশেষজ্ঞ এবং আইনশৃঙ্খলার লোকদের সাথে বসতে হবে। আমরা আশা করি ৫-৬ দিনের মধ্যে বসে একটা আলোচনা করবো। সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়টি পরিবেশটা প্রিভিউ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হতে হবে। আমরা ৫-৬ দিনের মধ্যে বসে যাবো।”

HostGator Web Hosting