| |

সর্বশেষঃ

কতজন হজের সুযোগ পাবেন তা জানার চেষ্টা করছি : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

আপডেটঃ 6:07 pm | March 22, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসের কারণে চলতি বছর সীমিত পরিসরে হজ পালন করা হবে বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। তিনি বলেন, এবারের হজে কতজন বাঙালি যেতে পারবেন-তা জানতে সৌদি আরবের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

সোমবার (২২ মার্চ) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রতিমন্ত্রী এসব তথ্য জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, হজ নিয়ে সৌদি সরকার এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। তাই বাংলাদেশ ও সৌদি সরকারের মধ্যে এ সংক্রান্ত এখনও কোনো চুক্তি হয়নি। ২০২১ সালে কতজন বাংলাদেশি হজের সুযোগ পাবেন তা নিয়ে সৌদির সঙ্গে আমরা আলোচনা করার চেষ্টা করছি। তবে টিকা গ্রহণ শর্তে যেহেতু এবার হজ পালিত হবে তাই বাংলাদেশিরাও এতে সীমিত পরিসরে সুযোগ পাবেন। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, এবার ১০ হাজারের মতো বাঙালি হজে যেতে পারবেন। তবে এর সংখ্যা বাড়তেও পারে।

‘ষাটোর্ধ্ব কোনো ব্যক্তি এবার হজের সুযোগ পাচ্ছেন না’ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের এমন খবরের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিষয়টি জেনেছি। তবে সৌদি সরকারের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়নি। যদি তারা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েই থাকে, সেটা মেনেই আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব’। যাত্রীদের করোনা টিকা নিয়ে হজে যেতে হবে জানিয়ে নিবন্ধিত সবাইকে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

গত মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, ২০২১ সালে হজযাত্রীদের করোনা টিকা বাধ্যতামূলক করেছে সৌদি আরব। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ থেকে হজে যেতে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের তালিকা প্রস্তুত করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। আগ্রহী ব্যক্তিদের আগামী মে মাসের মধ্যে করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিতে হবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়টি।

আসন্ন পবিত্র হজ ২০২১ এ গমনেচ্ছু হজযাত্রীদের কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহণ করতে হবে । সেজন্য আগাম প্রস্তুতি হিসেবে সরকারি ও বেসরকারি সিস্টেমে নিবন্ধিত ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে ও ৪০ বছরের নিম্নে ৪ হাজার ৮৩৩ জন এবং ৪০ বছরের ঊর্ধ্বে ৫৫ হাজার ৮৭৩ জন ব্যক্তিকে কোভিড -১৯ এর টিকা গ্রহণ করতে হবে।

টিকা কার্ডে ট্র্যাকিং নম্বর, নাম, জন্ম তারিখ, পিতা-মাতার নাম, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা, লিঙ্গ, মোবাইল নম্বর, হজ লাইসেন্স নম্বর, এজেন্সির নাম ইত্যাদি তথ্য উল্লেখ থাকবে।

হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের মাধ্যমে মার্চের মধ্যে টিকার প্রথম ডোজ ও মে মাসের মধ্যে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরকে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

HostGator Web Hosting