| |

Ad

সর্বশেষঃ

সুস্থ সংস্কৃতি এগিয়ে নিতে কাজ করছে সরকার : এলজিআরডি মন্ত্রী

আপডেটঃ ৯:০২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১৩, ২০১৭

ফরিদপুর প্রতিনিধি : স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বর্তমান সরকার সুস্থধারার সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে কাজ করছে। এ জন্য সকলকে সহযোগিতা করতে হবে।

পল্লী কবি জসীম উদ্দীনের ১১৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার জসীম পল্লীমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, কবি জসীম উদ্দীন ছিলেন গ্রাম বাংলার মানুষের কবি। তার মতো করে অন্য কোনো কবি গ্রামকে সাহিত্য চর্চার মাধ্যমে তুলে ধরনেনি। তিনি বলেন, এই কবিকে দেশের মানুষের মাঝে বাঁচিয়ে রাখতে সরকার জসীম সংগ্রহ শালা তৈরি করেছে, যা অল্প দিনের মধ্যে উদ্বোধন করা হবে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন আরও বলেন, জসীম উদ্দীনের রেখে যাওয়া গ্রাম বাংলা বিদেশি অপসংস্কৃতিতে কলুষিত হচ্ছে। গ্রামীণ সংস্কৃতিকে রক্ষা করতে হলে পল্লী কবির সাহিত্য ও সংস্কৃতির প্রতিটি উপাদান আরও বেশি চর্চা করতে হবে।

কবি ফরিদপুরের যে কুমার নদের তীরে বসে সাহিত্য রচনা করতেন সে কুমারকে আমরা (বর্তমান সরকার) খনন করে আগের রুপে ফিরিয়ে নেওয়ার কাজ দ্রুত শুরু হবে বলেও আশ^াস দেন এলজিআরডি মন্ত্রী।

জেলা প্রশাসন ও জসীম ফাউন্ডেশনের আয়োজনে আজ থেকে মাসব্যাপী জসীম পল্লীমেলা শুরু হয়েছে। শহরতলীর অম্বিকাপুরে কবির বাড়ির সামনে কুমার নদের তীরে জসীম উদ্যানে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এই মেলার উদ্বোধন করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক ও জসীম ফাউন্ডেশনের সভাপতি বেগম উম্মে সালমা তানজিয়ার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ফরিদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লোকমান হোসেন মৃধা, গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক সরকার মোখলেসুর রহমান, ফরিদপুরের পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার মোহতেসাম হোসেন বাবর ও কবির ছেলে ড. জামাল আনোয়ার।

মেলায় ১৬৫টি স্টলে গ্রামীণ সাংস্কৃতির নানা উপাদান প্রদর্শন ও বিকি-কিনির সঙ্গে দেশি খাবার বিক্রিরও দোকান রয়েছে। এছাড়া মেলায় সার্কাস, পুতুল নাচ, শিশুদের ট্রেন, মোটর সাইকেল খেলা, নাগর দোলার মতো মজার আয়োজন এই বছরও করা হয়েছে। সন্ধ্যার পর থেকে মেলার প্রান্তে জসীম মঞ্চে স্থানীয় ও অন্য জেলাগুলোর নাট্যদল, গানের দল ও সাহিত্য সংগঠনগুলোর মনোরম পরিবেশনার আয়োজন করা হয়েছে।

আরোও পড়ুন...