| |

Ad

সর্বশেষঃ

আইপিইউ সম্মেলন ঢাকায়

আপডেটঃ ১২:১০ পূর্বাহ্ণ | এপ্রিল ০৩, ২০১৭

প্রথমবারের মতো ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) সম্মেলন হচ্ছে ঢাকায়। দুনিয়াজোড়া যখন সন্ত্রাসবাদের কালো থাবা ক্রমেই বিস্তৃত হচ্ছে তখন ঢাকা সম্মেলনকে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করা হচ্ছে। সম্মেলনে সারা দুনিয়ার নীতিনির্ধারকরা সন্ত্রাসবাদ উত্থানের কারণ অনুসন্ধান করে তা থেকে নিষ্কৃতির পথ খুঁজবেন। পাঁচ দিনের এ সম্মেলন শুরু হয়েছে গতকাল শনিবার, চলবে আগামী ৫ এপ্রিল পর্যন্ত। সম্মেলনে ১৩২টি দেশের এক হাজার ৩৪৮ জন সংসদ সদস্য যোগ দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে স্পিকার রয়েছেন ৪৫ জন ও ডেপুটি স্পিকার ৩৭ জন। বাংলাদেশে এর আগে কখনো এত বড় মাপের কোনো আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়নি। সম্মেলন উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্মেলনের নিরাপত্তা রক্ষা করতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোকে যেমন গলদঘর্ম হতে হচ্ছে, তেমনি ত্রুটিবিহীন ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতেও সংশ্লিষ্টদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। সম্মেলন উপলক্ষে কয়েকটি রাস্তায় যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করায় যাত্রীদেরও কিছুটা ভোগান্তি হয়েছে, অবশ্য দেশের গৌরব বিবেচনায় সবাই হাসিমুখেই তা মেনে নিয়েছেন।
সংসদীয় গণতন্ত্র আছে এমন দেশগুলোর সংগঠন ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন (আইপিইউ)। এটি সদস্য দেশগুলোর গণতন্ত্র, সুশাসন ও মানবাধিকার উন্নয়নে কাজ করে থাকে। সংগঠনটির ১৩৮ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম পরিবেশবান্ধব সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এর নাম দেওয়া হয়েছে গ্রিন অ্যাসেম্বলি বা সবুজ সম্মেলন। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা বাংলাদেশের জন্য এটি অবশ্যই একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। সম্মেলন আয়োজন, প্রতিনিধিদের বিমানযোগে এখানে আসাসহ সম্মেলনসংশ্লিষ্ট নানা কারণে যে পরিমাণ কার্বন নিঃসরণ হবে, তার পরিমাণ নির্ণয় করে সেই ক্ষতি মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে এবং তার খরচ বহন করবে আইপিইউ। সন্ত্রাসবাদের বৈশ্বিক ঝুঁকি ও সদস্য দেশগুলোর ওপর তার অভিঘাত বিবেচনায় নিয়ে সমন্বিত উদ্যোগে তা নিরসনের উপায়ও খোঁজা হবে এই সম্মেলনে। সদস্য দেশগুলোর গণতন্ত্র সুসংহতকরণ, সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও মানবাধিকার রক্ষায়ও সমন্বিত পরিকল্পনা নেওয়া হবে। পাশাপাশি সদস্য দেশগুলোর মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নে এই সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেই আমরা বিশ্বাস করি।
ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন পৃথিবীর সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ সংগঠনগুলোর একটি। এমন একটি সংগঠনের সম্মেলন ঢাকায় অনুষ্ঠিত হওয়া ও তাতে ১৩২টি দেশের সংসদীয় প্রতিনিধিদলের যোগদান বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গৌরবের। এর বর্তমান সভাপতিও বাংলাদেশের একজন সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী। এসবই প্রমাণ করে বাংলাদেশ ক্রমেই দুনিয়াব্যাপী গৌরবের আসনে অধিষ্ঠিত হচ্ছে। এই গৌরব ও মর্যাদা আমাদের ধরে রাখতে হবে এবং ক্রমান্বয়ে এগিয়ে নিতে হবে। এ জন্য আমাদের নিজেদের গণতন্ত্র, সুশাসন ও মানবাধিকার পরিস্থিতির আরো উন্নয়ন করতে হবে। পাশাপাশি দুনিয়াব্যাপী শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় ও মানবাধিকার উন্নয়নে আমাদের প্রয়োজনীয় ভূমিকা পালন করতে হবে। আমরা আইপিইউ সম্মেলনের সর্বাঙ্গীণ সাফল্য কামনা করছি।

আরোও পড়ুন...