| |

সর্বশেষঃ

  • মুজিব বর্ষ

শনিবার যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী, কক্সবাজারজুড়ে উৎসবের আমেজ

আপডেটঃ 2:36 pm | May 04, 2017

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজার সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আসছেন শনিবার। প্রধানমন্ত্রীর আগমন নিয়ে প্রচার-প্রচারণায় মুখর পুরো জেলা। জেলাজুড়ে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। চলছে পুরোদমে প্রস্তুতি।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় প্রধানমন্ত্রীর সফরের বিস্তারিত নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। কক্সবাজার সফরকালে বহু প্রতিক্ষিত স্বপ্নের মেরিন ড্রাইভ সড়কসহ ১৬ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী। তাছাড়া শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণ দেয়ারও  কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব-১ কাজী নিশাত রসুল স্বাক্ষরিত সফরসূচিতে প্রধানমন্ত্রীর কক্সবাজার জেলা সফরের বিস্তারিত তথ্য জানা গেছে।

সফরসূচি অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৬ মে (শনিবার) বিমানযোগে সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছে কক্সবাজার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সম্প্রসারিত রানওয়েতে সুপরিসর ৭৩৭-৮০০ বোয়িং বিমান চলাচল উদ্বোধন, সকাল সাড়ে ১১টায় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধিনস্থ সড়ক ও জনপদ বিভাগের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকর্তৃক সদ্য সমাপ্ত কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের উদ্বোধন করবেন। এছাড়া দুপুর পৌণে ৩টায় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের একাডেমিক ভবন, কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজের ১০০ শয্যাবিশিষ্ট ছাত্রী নিবাস, কক্সবাজার সরকারি কলেজের একাডেমিক ভবন কাম এক্সামিনেশন হল, কক্সবাজার সরকারি কলেজের ১০০ শয্যাবিশিষ্ট ছাত্রী নিবাস, উখিয়া বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজের দ্বিতল একাডেমিক ভবন ও মহেখালী-আনোয়ারা গ্যাস সঞ্চালন পাইপ লাইনের উদ্বোধন করবেন। তাছাড়া একই স্থান থেকে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্প (১ম পর্যায়), এলজিইডি অংশ এর আওতায় বাকখালী নদীর উপর খুরুস্কুল ঘাটে ৫৯৫.০০ মি: দৈর্ঘ্যের পিসি বক্সগার্ডার ব্রিজ, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কক্সবাজার আইটি পার্ক, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন এলএনজি টার্মিনাল, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন এসপিএম প্রকল্প, নাফ ট্যুরিজম পার্ক, কুতুবদিয়া কলেজের একাডেমিক ভবন ও কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অফিস ভবনের।

এরপর বিকাল ৩টায় জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় অংশগ্রহণ করবেন।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে চলছে পুরোদমে প্রস্তুতি। প্রশাসনের পক্ষ থেকে দফায় দফায় চলছে বৈঠক। আর জনসভা সফল করতে আওয়ামী লীগের জেলা পর্যায় থেকে শুরু করে জেলার ৭১টি ইউনিয়নের ওয়ার্ড পর্যায়ে পর্যন্ত চলছে জনসভা সফল করার প্রস্তুতি। দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমনকে কেন্দ্র করে এখানকার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে অন্যরকম এক উৎসবের আমেজ।

জনসভাকে সফল করতে ইতোমধ্যে জেলা আওয়ামী লীগ প্রতিনিধি সভা শেষ করেছে। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম।

সর্বশেষ ২ মে প্রস্তুতি সভা করেছে জেলা ছাত্রলীগ। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করতে জেলার আওয়ামী লীগের দলীয় ৩ সাংসদের নেতৃত্বে নিজ নিজ এলাকায় দিন-রাত চলছে প্রচার-প্রচারণা, সমাবেশ ও প্রস্তুতি সভা।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত জেলাবাসী। তাই যেন পর্যটন এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে চলছে রাস্তা সংস্কার ও সাজসজ্জার কাজ। আর জনসভাস্থল দফায় দফায় পরিদর্শন করে জনসভাকে সফল করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর জানান, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে তাদের জরুরি প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকল দলীয় নেতাকর্মীদের সুশৃঙ্খলভাবে জনসভায় অংশগ্রহণের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি জনসভাকে সফল করতে মিছিল সহকারে সভাস্থলে অংশগ্রহণের জন্য প্রত্যেক ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ আহবায়ক-যুগ্ম আহবায়কদের বলা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বরণের জন্য আমরা ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। প্রিয় নেত্রীকে ফুলেল অভিবাদন জানানো হবে।

মুজিবুর রহমান আরও বলেন, শেখ হাসিনা শুধু প্রধানমন্ত্রী নন, তিনি কোটি কোটি মানুষের নেত্রী, তিনি উন্নয়নের নেত্রী। কক্সবাজারের প্রতি বঙ্গবন্ধু কন্যা যেহেতু সবসময় বিশেষ সুনজর রাখেন সেই সুবাদে আমরা সবসময় তার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞ। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা জানিয়েছেন, দলীয় সভানেত্রীর কক্সবাজার আগমনের খবরে নেতাকর্মীরা এখন খুবই আনন্দিত এবং উজ্জীবিত। জননেত্রীকে চোখের এক পলক দেখতে জেলার ২৫ লাখ মানুষ অধিক আগ্রহ নিয়ে আছে।

জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন বলেন, এখনো পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা মতে আগামী ৬ মে (শনিবার) প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজার আসার ব্যাপারে চূড়ান্ত। সবকিছু ঠিকটাক থাকলে আমরা আশা করছি ৬ মে প্রধানমন্ত্রীকে পর্যটন শহর কক্সবাজারে পাব।

প্রসঙ্গত, সরকারের দুই বারের ক্ষমতায় কক্সবাজারে এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পঞ্চম সফর।

HostGator Web Hosting