| |

সর্বশেষঃ

কেন্দুয়ায় জল্লী গ্রামে গলফ খেলার মাঠ এখন নিঝুম পার্ক

আপডেটঃ ৪:১২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২২, ২০১৬

বিশেষ প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ প্রতিদিন : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার রামপুর জল্লী গ্রামের গর্বিত সন্তান জেলা জজ লতিফ আহমেদ খান নান্টু ঐচ্ছিক অবসরে এসে গত ৮ বছরের একক প্রচেষ্ঠায় স্বপ্নের গলফ খেলার মাঠটিকে প্রাকৃতিক কারনে নিঝুম পার্কে পরিনত করে তুলেছেন। ভ্রমন পিপাসু সকল বয়সী মানুষের কাছে ক্রমশই জনপ্রিয় হয়ে উঠতে শুরু করেছে অজপাড়া গায়ে’র ছায়া নীবিড় নিঝুম পার্কটি।

জানা গেছে, নেত্রকোনাসহ আশপাশ জেলার শত শত দর্শনার্থী প্রতিদিন জীব বৈচিত্রে ভরপুর কেন্দুয়া উপজেলার জল্লী গ্রামের মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে গড়ে উঠা নিঝুম পার্কে ভীড় করছেন। এরই মধ্যে গত ১লা বৈশাখ এবং ১লা ফাল্গুনে নিঝুম পার্কে প্রায় ১০ হাজার দর্শনার্থীর সমাগম ঘটেছে। নিঝুম পার্কের ভেতরে রয়েছে কোমলমতি শিশুদের খেলাধুলার সরঞ্জামাদি, ৩টি অত্যাধুনিক সেডের পাশাপাশি পিকনিক ও সেমিনার আয়োজনের সুব্যবস্থা।

আটপাড়া উপজেলার দর্শনার্থী জান্নাত খান পপি নিঝুম পার্ক ঘুরে অনুভুতি প্রকাশকালে বলেন, আমাদের জেলার ভ্রমন পিপাসু দর্শনার্থীদের কাছে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ছায়া নিবিড় নিঝুম পার্কটি। এখানে রয়েছে জীব বৈচিত্রের অফুরন্ত সমাহার। দীর্ঘদিন পর এখানে এসে ঘোড়া, ময়ুর, খরগোশ, হনুমান, বানর, হরিন, কাকাতোয়া, ঘুঘু, কবুতর দেখতে পেয়েছি। এছাড়াও নিঝুম পার্কের ভেতরের ফুল, লিচু, বড়ই গাছগুলোও আমাকে মুগ্ধ করেছে।

PIC 02নিঝুম পার্কের প্রতিষ্ঠাতা লতিফ আহমেদ খান নান্টু বলেন, আমার অবসর সময় কাটানোর জন্য ৩৩ একর গলফ খেলার জায়গাটি এখন প্রাকৃতিক কারনে নিঝুম পার্কে পরিনত হয়ে গেছে। পার্কের ভেতর এক একরের অধিক জায়গায় পদ্মা-মেঘনা-যমুনা সাদৃশ্য নদী তৈরি করে এরই মাঝে বাংলার মানচিত্র তৈরি করেছি। যা দর্শনার্থীদের বেশ আকৃষ্ট করছে।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting