| |

Ad

সর্বশেষঃ

ময়মনসিংহে জেলা পরিষদের উদ্যোগে দেড় হাজার শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান

আপডেটঃ ৬:১৩ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৮, ২০১৭

মোঃ রাসেল হোসেন, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : শুধু শিক্ষিত হলেই চলবে না। শিক্ষা গ্রহণের মাধ্যমে নিজেদেরকে যোগ্য করে তুলতে হবে। কোচিং নির্ভর শিক্ষা গ্রহন না করে সরকার প্রদত্ত সিলেবাস অনুসরণ করে এমন শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে যা নিজের, পরিবারের ও দেশের দায়িত্ব গহনের মত একজন আদর্শ মানুষ হওয়া যায়। ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন মঙ্গলবার সকালে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানকালে উপরোক্ত কথা বলেন।
এসএসসি, এইচএসসি ও সমমানের মেধাবী, দরিদ্র  ও মুক্তিযোদ্ধা (জিপিএ-৫) কোটায় ১ হাজার ৩৪৪জন শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়। এর মধ্যে মঙ্গলবার জেলা সদরের ৪২৩ জনকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। আজ ও কাল অন্যান্যদের বৃত্তি প্রদান করা হবে।
ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের আয়োজনে মঙ্গলবার পরিষদের ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বার হলরুমে এসএসসি, এইচএসসি ও সমমানের মেধাবী ও দরিদ্র (জিপিএ-৫) শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিকভাবে বৃত্তি প্রদান করা হয়। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি জি.এম সালেহ উদ্দিন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, শিক্ষা জীবনে বন্ধু নির্বাচনে খেয়াল রাখতে হবে। বন্ধুর খারাপ দিকগুলো যাতে নিজের জীবনকে সংক্রমিত না করে তার দিকে খেয়াল রেখে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ আজ ডিজিটাল হয়েছে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। খাদ্যে সয়ংস¤পূর্ণ হয়েছে। ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ হবে আর ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের উন্নত দেশ হিসাবে বিশ্বে পরিচয় পাবে। দেশের এ সকল অর্জন ধরে রাখতে তোমাদের দায়িত্ব নিতে হবে। এ জন্য লক্ষ্যস্থির করে মনোযোগের সাথে সরকার নির্ধারিত সিলেবাস অনুসারে লেখাপড়া করতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি বলেন, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদসহ খারাপ ভাল চিহ্নিত করে খারাপ থেকে দুরে থাকতে হবে।
জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (উপ-সচিব) এএইচএম লোকমানের পরিচালনায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক এড. মোঃ জহিরুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন মন্তা, ফারজানা শারমীন বিউটি, সদস্য আসমাউল হুসনা, সচিব বনানী বিশ্বাস, সাংবাদিক এম এ আজিজ, শিক্ষার্থী মার্জিয়া বেগম প্রমুখ। এর আগে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সমাপনী বক্তব্যে বলেন, মেধাবীদের বিকশিত করার লক্ষ্য জেলা পরিষদ প্রতি বছর বৃত্তি প্রদান করে আসছে। এ জন্য শোকের মাসকে বেছে নিয়ে প্রতি বছর আগষ্ট মাসে এ বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। আগামী বছর থেকে বৃত্তির পরিমাণ আরো বৃদ্ধি করা হবে।

আরোও পড়ুন...