| |

Ad

সর্বশেষঃ

শেরপুরে রাতভর বন্যহাতির তাণ্ডব, কৃষকের মৃত্যু

আপডেটঃ ৪:৫৯ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১১, ২০১৭

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরের শ্রীবরদীতে বন্যহাতি রাতভর ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছে। এ সময় হাতির আক্রমণে আব্দুল হাই ওরফে নাডু শেখ নামে এক ষাটোর্ধ কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুসহ আরও এক নারী আহত হয়েছেন। এছাড়াও হাতির দল তাণ্ডব চালিয়ে ১২/১৫টি বসতবাড়ি ভাঙচুর এবং বিস্ত্রীর্ণ এলাকার আমন ধানের বীজতলার ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে।

বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় উপজেলার রানীশিমূল ইউনিয়নের হালুয়াহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাডু শেখ ওই গ্রামের মৃত ছনু মন্ডলের ছেলে। আর আহতরা হলেন মাখনি বেগম (৮) ও আঙ্গুরী আক্তার (৪৫)।

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে আজ শুক্রবার বেলা ১১টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় বন বিভাগের কর্মকর্তারা।

বালিজুড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম জানান, রাতে মুষলধারে বৃষ্টির মধ্যে খাবারের সন্ধানে পাহাড় থেকে ৩০/৪০টি বন্যহাতির একটি দল সীমান্তবর্তী এলাকা হালুয়াহাটি গ্রামে নেমে আসে। এ সময় নাডু শেখের আমন ধানক্ষেতের বীজতলা হাতির দল পা দিয়ে মাড়াতে শুরু করে। বীজতলা রক্ষা করতে তিনি ও অন্যান্য কৃষকরা মশাল নিয়ে হাতির পালকে তাড়াতে যায় এবং আশপাশের লোকজনকে ডাকাডাকি করতে থাকে। তাণ্ডবরত বন্যহাতির পাল উল্টো ধাওয়া দিয়ে নাডু  শেখকে শুঁড় দিয়ে প্যাঁচিয়ে আছড়ে পায়ে পিষ্ট করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ সময় শিশুসহ আরও এক নারী আহত হয়। গুরুতর আহত ওই দুইজনকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাতির দল তাণ্ডব চালিয়ে ১২/১৫টি বসতবাড়ি ভাঙচুর এবং বিস্ত্রীর্ণ এলাকার আমন ধানের বীজতলার ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রীবরদী থানার উপ-পরিদর্শক এমদাদ বলেন, রাতে হাতির দল নাডু শেখকে হত্যার পর তার লাশ ঘিরে রাখে। আজ সকালে হাতির দলটি ঘটনাস্থল ত্যাগ করলে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

জেলা হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক জব্বার বলেন, হাতির আক্রমণে আহত ওই দুজন বর্তমানে শঙ্কামুক্ত রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালেদা নাসরিন বলেন, বন্যহাতির হামলায় নিহত নাডু শেখের পরিবারকে এক লাখ টাকা দেয়া হবে। এছাড়াও আহতদের চিকিৎসার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ছয় হাজার এবং বন বিভাগের পক্ষ থেকে আরও দশ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। আর ঘরবাড়ি মেরামতের জন্য অন্যদের দুই বান্ডিল করে টিন বিতরণ করা হবে।

আরোও পড়ুন...