| |

Ad

সর্বশেষঃ

‘ইভটিজিং করিস না জেল খেটে মরিস না’

আপডেটঃ ৯:১০ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২১, ২০১৮

শেরপুর প্রতিনিধি : ‘ধর্মীয় মূল্যবোধের শিক্ষা দিন- বন্ধ হবে ইভটিজিং, লাল-সবুজের শিক্ষা দিন- বন্ধ হবে ইভটিজিং, ইভটিজিং করিস না জেল খেটে মরিস না’ এমন প্রাণবন্ত স্লোগানের মধ্যদিয়ে এক স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির চাঞ্চল্যকর মামলার রায়ে স্বস্তি প্রকাশ করে শেরপুরের নালিতাবাড়ীর বরুয়াজানী হাসান উচ্চবিদ্যালয়, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কলেজ ও বরুয়াজানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ব্যক্তিবর্গ স্থানীয় এলাকাবাসী র‌্যালি, মানববন্ধন ও পথসভা করেছে।

শনিবার বিকালে উপজেলার বরুয়াজানী বাজারে এসব কর্মসূচি পালিত হয়।

গত ১৭ এপ্রিল নালিতাবাড়ীতে এক স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির চাঞ্চল্যকর মামলায় অন্তর মিয়া (২১) ও রানা (২০) নামে দুই যুবককে তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৩০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেয় আদালত।

শেরপুরের শিশু আদালতের হাকিম মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন আসামিদের উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- উপজেলার ছিটপাড়া গ্রামের অন্তর মিয়া ও একই এলাকার রানা মিয়া।

শিশু আদালতের সরকারি কৌশলী অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ২০১৭ সালের ২১ মে সন্ধ্যার পর নালিতাবাড়ী উপজেলার ঘাইলারা শামছুল হক স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ও স্থানীয় বিন্নিবাড়ি গ্রামের কৃষক পরিবারের একটি মেয়ে (১৩) কোচিং শেষে বাড়ি ফেরার পথে বখাটে অন্তর ও রানা শ্লীলতাহানি করে এবং একপর্যায়ে তাকে মোটরসাইকেলে উঠানোর চেষ্টা করে। এ সময় ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে থাকা অন্যান্য বান্ধবীদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন অন্তর ও রানাকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে ওই ঘটনায় স্কুলছাত্রীর বাবা নালিতাবাড়ী থানায় মামলা করলে পুলিশ তদন্ত শেষে উভয় আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। মামলায় বিচারিক পর্যায়ে ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে শিশু আদালতের হাকিম এ রায় দেন।

স্বস্তি প্রকাশ করে পথসভায় বক্তব্য রাখেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযুদ্ধা জিয়াউল হক, দফতর সম্পাদক রেজাউল করিম, সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক সারুয়ার আহম্মেদ স্বপন, শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুনীরুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ তালুকদার মুকুল, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কলেজের অধ্যক্ষ সেকান্দর আলী, বরুয়াজানী হাসান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম, অভিভাবক সেকান্দর আলী, ইউপি সদস্য শুকলা নাবাল, শিক্ষার্থী মোছলেমা খাতুন প্রমুখ।

আরোও পড়ুন...