| |

সর্বশেষঃ

কারাগারে আদালত, নিরাপত্তা জোরদার

আপডেটঃ ১২:৪২ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে আদালত বসাকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচারকাজ এখানে হবে বলে আইন মন্ত্রণালয় থেকে গতকাল এক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

বুধবার সকালে সরেজমিনে দেখা গেছে, কারাগার ও এর আশপাশ এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সামনের সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে আশপাশের দোকানপাটও। আদালতের কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। পথচারীদের তল্লাশি করা হচ্ছে। কোনো রিকশাও প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না ওই সড়কে।

আইন মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত ওই গেজেটে বলা হয়, নিরাপত্তার কারণে সরকারি আলিয়া মাদ্রাসার মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী আদালত থেকে নাজিমুদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের কক্ষ নম্বর ৭ কে অস্থায়ী আদালত ঘোষণা করা হয়েছে।

দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল গণমাধ্যমকে জানান, ‘এ মামলায় নির্ধারিত তারিখে হাজিরা না দেওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ তবে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা বলছেন, ‘এটি আইনের পরিপন্থী।’

আদালত থেকে জানা গেছে, চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় মোট আসামি চারজন। খালেদা ছাড়া অভিযুক্ত অপর তিন আসামি খালেদা জিয়ার তৎকালীন রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছ চৌধুরীর তৎকালীন একান্ত সচিব বর্তমানে বিআইডব্লিউটিএ-এর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান। মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন মোট ৩২ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়া দণ্ডিত হওয়ার পর থেকে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting