| |

Ad

সর্বশেষঃ

সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গৃহীত

আপডেটঃ ৮:১৮ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : দশম জাতীয় সংসদের ২জন সংসদ সদস্য, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী, জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব, সাবেক একজন মন্ত্রী, একজন প্রতিমন্ত্রী ও কয়েকজন সাবেক সংসদ সদস্যের মৃত্যুতে আজ সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদে এ শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন।
যাদের নামে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে তারা হলেন, এস, এম মোস্তফা রশিদী, দশম জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য, সাবেক হুইপ, মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরী, দশম জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শ্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী, জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান, সাবেক সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী কল্পরঞ্জন চাকমা, সাবেক সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী মোজাফফর হোসেন, সাবেক সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ শরীফ খসরুজ্জামান, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ আব্দুর রউফ মিয়া, সাবেক সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ফজলে এলাহী, সাবেক সংসদ সদস্য আলফাজ উদ্দিন, সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মো. আব্দুল মান্নান মন্ডল এবং সাবেক সংসদ সদস্য আনোয়ারা হাবীব।
এছাড়া খ্যাতিমান সাংবাদিক সমকাল পত্রিকার সম্পাদক গোলাম সারওয়ার সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. আয়ুব বখত জগলুল, দ্য ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেসের সম্পাদক এএইচএম মোয়াজ্জেম হোসেন, মার্কিন সিনেটর জন ম্যাককেইন, ভাষা সংগ্রামী হালিমা খাকুতন, ভাষা সৈনিক আব্দুল বাতেন, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যগুরু বজলার রহমান বাদল, ডেইলি অবজারভারের নির্বাহী সম্পাদক আনিস আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা ও লেখক মেজর (অব.) কামরুল হাসান ভূইয়া, ‘একাত্তরের জননী’ খ্যাত লেখক রমা চৌধুরী, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি মোস্তাক হোসেন, দক্ষিণ সুদানে গুলিতে নিহত বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আশরাফ সিদ্দিকী, বাসচাপায় রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী দিয়া আক্তার মিম ও আব্দুল করিম, মুজিবনগর সরকারের গার্ড অব অনার প্রদানকারী আনসার সদস্য লিয়াকত আলী, ইটিভির সিনিয়র সাংবাদিক মামুনুর রশিদ এবং প্রখ্যাত অভিনেত্রী রানী সরকারের মৃত্যুতে সংসদে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে।
সম্প্রতি ভারতের কেরালায় ভয়াবহ বন্যা, ইন্দোনেশিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্পে এবং দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণেও সংসদের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়।
শোক প্রস্তাবে মৃত্যুবরণকারী সকলের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।
পরে মৃত্যুবরণকারীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তাদের আত্মার শান্তি এবং মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সরকারি দলের সদস্য বজলুল হক হারুন।
এর পর সংসদের রীতি অনুযায়ী দিনের অন্যান্য কর্মসূচী স্থগিত করে অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করা হয়।

আরোও পড়ুন...