| |

সর্বশেষঃ

প্রত্যেক জেলায় স্থাপিত হবে শিশু একাডেমি

আপডেটঃ ৬:৩২ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

সচিবালয় প্রতিবেদক : বাংলাদেশ শিশু একাডেমির প্রধান দফতর রাজধানী ঢাকায় স্থাপিত হবে। তবে সরকারের বিশেষ অনুমতি নিয়ে দেশের অন্যান্য বিভাগ এবং প্রত্যেক জেলায় শিশু একাডেমির অফিস স্থাপন করা যাবে।

সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

এ সংক্রান্ত বাংলাদেশ শিশু একাডেমি আইন-২০১৮-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর আগে শিশু একাডেমি ১৯৭৬ সালের একটি অধ্যাদেশ অনুসারে চলে আসছিল।

তিনি জানান, উচ্চ আদালত এবং মন্ত্রিসভার নির্দেশ রয়েছে অধ্যাদেশগুলোকে আইনে পরিণত এবং বাংলায় রূপান্তর করতে হবে। তাই এই আইন অনুমোদন করা হয়েছে। এতে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট একটি ব্যবস্থাপনা বোর্ডের প্রস্তাব করা হয়েছে। একাডেমির নির্বাহী প্রধান ছিলেন পরিচালক। এ পদটিকে মহাপরিচালক পদ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রথিতযশা শিশুসাহিত্যিক, স্বাধীনতা পদক বা একশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ বা সাহিত্যিকদের মধ্য থেকে একজনকে একাডেমিক চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত করা যাবে বলে জানান তিনি।

বাংলাদশ শিশু একাডেমির নতুন আইনের ৮ ধারা মোতাবেক ফেলোশিপ প্রদান করার বিধান রাখা হয়েছে। এই ফেলোশিপ দেওয়ার জন্য একটি বিশেষ কমিটি গঠন করা হবে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী, মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সাত সদস্যের এই কমিটি গঠন করা হবে। এই কমিটির কার্যক্রম বিধির মাধ্যমে পরিচালিত হবে। বাংলাদেশ শিশু একাডেমির নতুন আইন অনুসারে পরিচালকের জায়গায় মহাপরিচালক সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবেন।

বোর্ডের এক-তৃতীয়াংশ সদস্যের উপস্থিতিতে কোরাম হবে এবং বোর্ড বছরে ছয়টি সভা করবে। ব্যবস্থাপনা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে সরকার নিযুক্ত করবে। চেয়ারম্যানের চাকরি সরকারের বিধির মাধ্যমে নির্দেশিত হবে। তবে তিনি সার্বক্ষণিক হবেন না।

এছাড়াও মন্ত্রিসভার বৈঠকে একাত্তরের জননী খ্যাত বীরাঙ্গনা রমা চৌধুরীর মৃত্যুতে মন্ত্রিসভায় শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting