| |

সর্বশেষঃ

জামালপুরে এক ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার

আপডেটঃ ৬:৪১ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর : জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ থানা পুলিশ সোমবার সকালে থানার কাছেই ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে পাঁচটি মামলার আসামি ইজিবাইকচালক রবিউল ইসলাম আপেলের (২৬) লাশ উদ্ধার করেছে। রবিবার রাতে মাদকবিরোধী তল্লাশীর সময় রবিউল পুলিশের চেকপোস্টে থেকে ইজিবাইক রেখেই পালিয়েছিল। নিহত রবিউল উপজেলার চিকাজানী ইউনিয়নের লিয়াকত আলী টুনুর ছেলে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে তাকে নির্যাতন করে নদীতে ফেলে দিয়ে মৃত্যুর অভিযোগ তুলে সোমবার সকালে বিক্ষুব্ধ জনতা মিছিল নিয়ে থানা ঘেরাও করে। রবিউল তিনটি মাদক মামলাসহ পাঁচটি মামলার আসামি। ভয়ে পালিয়ে গিয়ে নদীতে ঝাপ দিয়ে মারা গেছে বলে পুলিশ দাবি করেছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে দেওয়ানগঞ্জ থানা পুলিশ রবিবার রাতে থানার সামনে চেকপোস্ট বসায়।

রাত সাড়ে ৭টার দিকে পুলিশ রবিউলকে ইজিবাইকসহ আটক করলে ইজিবাইক রেখে পালিয়ে দেওয়ানগঞ্জ বাজারের দিকে যায়। স্থানীয়রা চোর সন্দেহে তাকে ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে সে ব্রহ্মপুত্র নদে ঝাপ দিয়ে নিখোঁজ হয়। দেওয়ানগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সোমবার সকালে ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে রবিউলের লাশ উদ্ধার করে। তখনও তার কান দিয়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। লাশ উদ্ধারের পরপর এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ জনতা দেওয়ানগঞ্জ থানা ঘেরাও এবং সড়ক অবরোধ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

খবর পেয়ে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য রবিউলের লাশ জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

এদিকে নিহতের শোকার্ত মা রাহেলা বেগমের অভিযোগ, তার ছেলে রবিউল কোনো দোষ করে নাই। ইজিবাইক চালিয়ে সংসার চালাতো। তাকে পুলিশ ও স্থানীয়রা নির্যাতন করে নদীতে ফেলে দেয়। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চান। দেওয়ানগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মো: লুৎফর রহমান জনকণ্ঠকে বলেন, চেকপোস্টে কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই রবিউল ইজিবাইক রেখে বাজারের দিকে পালিয়ে যায়। পরে জানতে পারি ব্রহ্মপুত্র নদে ঝাপ দিয়েছে সে। রাতে অনেক খোঁজাখুঁজি করা হয়। সোমবার সকাল ৯টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। পুলিশি নির্যাতনে মারা যাওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, পালিয়ে গেলেও ইজিবাইক রেখে যাওয়ার কারণে পুলিশ তাকে ধাওয়া করেনি। পুলিশ তাকে কোনো নির্যাতন করেনি।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting