| |

সর্বশেষঃ

পাঁচ স্তরের স্থানীয় সরকারের আইনি কাঠামো তৈরি হয়েছে : সমবায়মন্ত্রী

আপডেটঃ ৬:২৬ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে এখন পাঁচ স্তরের স্থানীয় সরকারের মজবুত একটি আইনি কাঠামো তৈরি হয়েছে বলে দাবি করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর কাকরাইলে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর মিলনায়তনে ‘কার্যকর ও জবাবদিহিতামূলক স্থানীয় সরকার’ প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ দাবি করেন।

ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, জেলা পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশগুলো এখন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক উপায়ে পরিচালিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ ব্যবস্থার ওপর জোর দিয়েছে। এখন গ্রাম ও শহরের যোগাযোগ খুবই ভালো। আধা ঘণ্টা সময় লাগে গ্রাম থেকে শহর এলাকায় পৌঁছাতে।

মন্ত্রী বলেন, নানা সীমাবদ্ধতা সত্বেও ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদ বিভিন্ন নাগরিক সেবা এবং স্থানীয় অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্ব রাখছে। তবে জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী চ্যালেঞ্জও আছে। উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ পর্যায়ে দীর্ঘমেয়াদে উন্নয়ন দৃষ্টিভঙ্গী তৈরি করতে সমন্বিত পরিকল্পনার কোনো বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, এ প্রকল্পের মাধ্যমে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তাসহ স্থানীয় নাগরিক সমাজের অংশগ্রহণে একটি নতুন গণতান্ত্রিক ও অংশগ্রণমূলক প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক সংস্কৃতি গড়ে তোলা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে আন্তরিক, এ কথা জানিয়ে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, প্রতিটি উপজেলা পরিষদে একটি করে ৫০০ আসন বিশিষ্ট অডিটরিয়াম কাম মাল্টিপারপাস হল নির্মাণের প্রকল্প চলমান রয়েছে। এ পর্যন্ত ৩ হাজার ১৫০টি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কার্যকর ও জবাবদিহিতামূলক স্থানীয় সরকার প্রকল্পের আওতায় আটটি জেলার ১৬টি উপজেলা এবং ২৪০টি ইউনিয়ন পরিষদে ৫৬ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে হবে। প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যকারিতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতে ৫ বছর মেয়াদী এ প্রকল্প নেয় স্থানীয় সরকার বিভাগ।

জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি), সুইস এজেন্সি ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড কো-অপারেশন (এসডিসি) ও ডেনিস ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট এজেন্সি প্রকল্পটিতে অর্থায়ন করছে।

প্রকল্পটির মাধ্যমে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের জনগণের অংশগ্রহণের মাধ্যমে পরিষদের পরিকল্পনা ও বাজেট প্রণয়ন স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধিদের দক্ষতা উন্নয়ন, পরিষদগুলোর ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির উন্নয়ন, জনগণের সচেতনতা বৃদ্ধি, গণশুনানি আয়োজনসহ স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. জাফর আহমেদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- ইউএনডিপির কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জী, সুইজারল্যান্ড দূতাবাসারে ডেপুটি হেড অব মিশন বিয়াতে এলসেসার, ডেনমার্ক দূতাবাসের ডেপুটি হেড অব মিশন রেফিকা হায়তা প্রমুখ।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting