| |

সর্বশেষঃ

দুর্বল হচ্ছে তিতলি, কমে ৩ নম্বর সতর্কতা

আপডেটঃ ১:৫৫ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ১১, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় তিতলি ভারতের উড়িষ্যা ও অন্ধ্র উপকূল অতিক্রমের পর ক্রমেই দুর্বল হয়ে পড়ছে। বর্তমানে উড়িষ্যা উপকূলীয় এলাকায় প্রবল ঘূর্ণিঝড় আকারে অবস্থান করা তিতলি আরও উত্তর/উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হয়ে আরও দুর্বল হয়ে যেতে পারে। এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) সকালে আবহাওয়া অধিদফতরের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্র থেকে আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হ্যারিকেনের তীব্রতাসম্পন্ন প্রবল ঘূর্ণিঝড় তিতলি উত্তর/উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আজ সকালে গোপালপুরের কাছ দিয়ে ভারতের উড়িষ্যা-অন্ধ্র উপকূল অতিক্রম করেছে। এটি বর্তমানের ভারতের উড়িষ্যা উপকূলীয় এলাকায় প্রবল ঘূর্ণিঝড় আকারে অবস্থান (১৮ দশমিক ৯ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশ ও ৮৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশ) করছে। এটি আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়তে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপে তারতম্য দেখা যাচ্ছে। এতে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালাও তৈরি হচ্ছে। ফলে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

তিতলি দুর্বল হয়ে পড়ায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে চার নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে এর পরিবর্তে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। তবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়েও থাকতে বলা হয়েছে আবহাওয়া অফিসের পক্ষ থেকে।

ব্রিংফিংয়ে জানানো হয়, হ্যারিকেনের তীব্রতাসম্পন্ন প্রবল ঘূর্ণিঝড় তিতলি উত্তর/উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আজ সকালে গোপালপুরের কাছ দিয়ে ভারতের উড়িষ্যা-অন্ধ্র উপকূল অতিক্রম করেছে।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting