| |

সর্বশেষঃ

শেখ হাসিনাকে এখন ফলো করছেন বিশ্ব নেতারা : সংস্কৃতিমন্ত্রী

আপডেটঃ ৪:০৬ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ১৭, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কারণে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পেরেছে। বাংলাদেশের অভাবনীয় অগ্রযাত্রা জানতে এখন বড় বড় দেশগুলোর নেতারা শেখ হাসিনাকে ফলো করছেন।

বুধবার দুপুরে নীলফামারী শিল্পকলা অডিটোরিয়ামে ‘কিশোর-কিশোরী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, নারীদের সক্ষমতা বাড়াতে প্রধানমন্ত্রী বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্তকরণ ছাড়াও মেধার মূল্যায়নও করেছেন নারীদের। যার উদাহরণ হিসেবে দেখা যায় বিভিন্ন জেলায় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার পদে নারীদের পদচারণা।

তিনি বলেন, নারীদের এগিয়ে যাওয়ায় বাধা হিসেবে বাল্যবিবাহ দাঁড়ালেও এর জন্য দায়ী অবিভাবকরা। এজন্য সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, ইউনিসেফের রংপুর ও রাজশাহী অফিস প্রধান নাজিবুল্লাহ হামিম, আরডিআরএস’র পরিচালক হুমায়ুন খালিদ, ইউনিসেফের চাইল্ড প্রটেকশন অফিসার জেসমিন হোসেন, ডিমলা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তবিবুল ইসলাম, নীলফামারী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা লাভলী ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জেলা আহ্বায়ক আহসান রহিম মঞ্জিল।

জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আব্দুল মোত্তালেবের স্বাগত বক্তব্যে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে ‘এন্ডিং চাইল্ড ম্যারিজ থ্রো অ্যাডলেসন্টস ইমপাউআরমেন্ট’ প্রকল্পের কার্যক্রম উত্থাপন করেন প্রকল্প সমন্বয়কারী সিদ্দিকুর রহমান।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মহসিন রেজা রুপম ও ইউনিয়ন পরিষদ সচিব রিফাত আরা সিমির সঞ্চালনায় ডিমলা উপজেলার কিশোরী নওরিন জাহান তনু ও ডোমার উপজেলার কিশোর বিজয় রায় বক্তব্য দেন।

ইউনিসেফের সহযোগিতায় নীলফামারী জেলার ডোমার, ডিমলা ও কিশোরগঞ্জ উপজেলায় বাল্যবিবাহ রোধে কাজ করবে আরডিআরএস।

চলতি বছরের জুন থেকে শুরু হওয়া প্রকল্পটি শেষ হবে ২০২০ সালের জুন মাসে। এটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন মন্ত্রী।

‘বাল্যবিবাহ বন্ধ করি, উন্নত জাতি গঠন করি’ স্লোগানে নীলফামারী জেলা পর্যায়ে বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি দফতর প্রধান, সাংবাদিক, এনজিও প্রতিনিধি ছাড়াও প্রকল্পভুক্ত তিন উপজেলার সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি এবং কিশোর কিশোরীরা অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে নীলফামারী সদরের শহীদ আলী হোসেন সড়কে অবস্থিত নিজ বাসভবনে বিভিন্ন জনের মাঝে সেলাই মেশিন, হুইল চেয়ার বিতরণ করেন মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

HostGator Web Hosting