| |

Ad

সর্বশেষঃ

/ কৃষি ও পরিবেশ

হাওরাঞ্চলে নতুন মাছের সংকট

জুলাই ১৬, ২০১৮

নেত্রকোনা প্রতিনিধি : দেশের অন্যতম মৎস্য ভাণ্ডার হিসেবে খ্যাত নেত্রকোনার হাওরগুলোতে এ বছর পর্যাপ্ত ডিম না ফোটায় মাছের সংকট দেখা দিয়েছে। এতে মৎস্যজীবীদের কপালে দুঃশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। স্থানীয় মৎস্য বিশেষজ্ঞরা জানান, নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিস্তীর্ণ হাওরগুলো হচ্ছে মিঠা পানির মৎস্য ভাণ্ডার। এই হাওরগুলোতে বছরের ৭/৮ মাস পানি থাকে। বৈশাখ মাসের শুরুর দিকে বৃষ্টিপাতে নেত্রকোনার হাওরগুলোতে নতুন পানি আসতে শুরু করে। নতুন পানি আসার সঙ্গে সঙ্গে সাথে ১৫ বৈশাখ থেকে ৩০ বৈশাখের মধ্যে রুই, কাতলা,বোয়াল,সিং, মাগুর, কৈ, গইন্যা, আইড়, সরপুটি, কাল বাউশ, চিংড়ি, শোল, গজারসহ প্রায় ৫০ প্রজাতির দেশীয় মা মাছ হাওরে প্রচুর ডিম ছাড়ে।...

৬৮ কোটি টাকার আম নিয়ে বিপাকে চাষিরা

জুলাই ০৪, ২০১৮

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের সখীপুরে ঝড় ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ না থাকায় এবছর আমের বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলে উৎপাদিত ৬৮ কোটি টাকার আম নিয়ে বিপাকে পড়েছেন চাষিরা। ২০০০ সালে স্থানীয় কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ উপজেলার ২০ জন চাষিকে ১০০টি করে আম্রপালি চারা দিয়ে প্রদর্শনী প্লট শুরু করে। বর্তমানে উপজেলায় প্রায় সাড়ে ৫০০ আম চাষি ৩০০ হেক্টর জমিতে আম চাষ করেন। উপজেলার প্রতিটি বাড়ির আঙিনায় ছোট-বড় অসংখ্য আম বাগান রয়েছে। এসব আম বাগান থেকে চলতি মৌসুমে আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে প্রায় ৮৫ হাজার মেট্রিক টন। এবছর উৎপাদিত আমের বাজার মূল্য ধরা হয়েছে প্রায় প্রায় ৬৮ কোটি টাকা। আমের সংরক্ষণাগার ও বিপণন ব্যবস্থা না থাকায় সখীপুরে উৎপাদিত প্রায়...

ধানের মুড়ি ফসল কৃষিতে নতুন বিপ্লব

জুন ২৮, ২০১৮

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরে নালিতাবাড়ী উপজেলায় এখন বোরো ধানের জমিতে মুড়ি ফসল হচ্ছে। উপজেলার পোড়াগাঁও, নন্নী, রামচন্দ্রকুড়া, কাকরকান্দি, নালিতাবাড়ী সদর, রূপনারায়ণকুড়া, নয়াবিল ইউনিয়ন এবং ঝিনাইগাতী উপজেলার কিছু এলাকায় মুড়ি ফসল বেশি লক্ষ্য করা যায়। বিআর-২৬ ও ব্রি ধান-২৮ জাতের জমিতে মুড়ি ফসল বেশি হলেও হাইব্রিড জাতের কিছু ধানের জমিতেও মুড়ি ফসল দেখা যায়। একর প্রতি গড়ে ১০-১৪ মণ ধান পাচ্ছেন কৃষকরা। তবে শীষ আসার সময় যে সকল কৃষকগণ সামান্য যত্ন নিয়েছেন তারা ফলন পাচ্ছেন একর প্রতি ১৬-২০ মণ। কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, মুড়ি ফসলকে ইংরেজিতে বলে ‘রোটন ক্রপ’। বিশেষত ধান, আখ, কলায় মূল ফসল কাটার পর অবশিষ্টাংশ গোড়া থেকে পুনরায় গাছ হয় ও ফলন পাওয়া যায়। একেই মুড়ি...

ভালুকায় অর্গানিক ড্রাগন চাষ : কৃষিতে নতুন বিপ্লব

জুন ২৫, ২০১৮

ভালুকা প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ভালুকায় অর্গানিক ড্রাগন চাষে সাফল্য এসেছে। উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের কাতলামারী গ্রামের ডা. শাহ মোহাম্ম্দ শরীফ শখের বসে ও এলাকার কৃষকদের উদ্ধৃত্ত করতে ৬০০শত ড্রাগন গাছ রোপন করে। চলতি বছর বাগানে মিষ্টি ড্রাগন ফল ধরেছে। গোলাপী রঙের ড্রাগন ফল ক্যাকটাস জাতীয় লতানো গাছে ধরে। খাঁজকাটা এই ফলের অদ্ভুত চেহারার জন্যই এমন নামকরণ। মেক্সিকান এই ফলে প্রচুর ভিটামিন ও খনিজ লবণ সমৃদ্ধ থাকে। সম্প্রতি ভালুকার কাতলামারী গ্রামে গিয়ে দেখা যায়,একটি আবাদী জমিতে পাঁচ ফুট উচ্চতায় খুঁটি পেঁচিয়ে উঠেছে ড্রাগন ফলের গাছ। গাছে ঝুলছে কাঁচা-পাকা ফল। বাগানের মালিক ডাঃ শরীফ জানান,২০১৬সালে আমি শখের বসে ৩০০শত ড্রাগন গাছ ও ২০১৭ সালে ৩০০শত...

শ্রমিক সংকটে জনপ্রিয় হচ্ছে কম্বাইন হারভেস্টার

জুন ০৫, ২০১৮

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলে এবার ধানের বাম্পার ফলন হলেও শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত শ্রমিক মজুরি কৃষকের গলার কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত শ্রমিক মজুরির কারণে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আধুনিক কৃষিযন্ত্র কম্বাইন্ড হারভেস্টার। এ মেশিন দিয়ে একজন শ্রমিক দিনে ১০ থেকে ১২ বিঘা জমির ধান কাটতে পারেন এবং মাড়াই, ছাঁটাই ও বস্তা ভর্তিকরণ করা যায়। পাশাপাশি মেশিনে প্রতি বিঘা ধান কাটতে খরচ হয় ১২ থেকে সর্বোচ্চ ১৫শ’ টাকা। একইভাবে কৃষকের উৎপাদন ব্যয় কমাতেও সক্ষম এই আধুনিক কৃষিযন্ত্র। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে জেলার ১২টি উপজেলায় হাইব্রিড, উফশী ও স্থানীয় জাতের বোরো ধানের বাম্পার ফলন হলেও কালবৈশাখী, প্রচুর বৃষ্টি ও বজ্রপাতের ফলে ধানকাটা...

জামালপুরের চাষিদের পান চাষে আগ্রহ বাড়ছে

জুন ০৩, ২০১৮

জামালপুর প্রতিনিধি : দেশের বিভিন্ন এলাকার পান চাষিরা ভালো নেই। উৎপাদন খরচ বেড়ে যাওয়ায় দিন দিন তারা পান চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন। তবে এর উল্টো চিত্র দেখা গেছে জামালপুরে। এ জেলার চাষিদের মধ্যে দিন দিন পান চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। চাষি ও কৃষি বিভাগের ভাষ্য, এ জেলার বিভিন্ন এলাকায় পান চাষে ফলন বেশি হয়। উৎপাদন খরচ বেশি হলেও বছরের অধিকাংশ সময়ই দাম ভালো পাওয়া যায়। তাই অন্যান্য ফসল ছেড়ে চাষিরা পান চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জামালপুরের প্রায় সব ক’টি উপজেলায়ই পান চাষ হয়। এর মধ্যে সদর উপজেলায় পান চাষ বেশি হয়। এ উপজেলার রাণাগাছা, নরুন্দি, ঘোড়াধাপ ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছে, ইউনিয়ন তিনটিতে অনেক পানের বরজ রয়েছে। প্রত্যেক বরজে সারি সারি পানের লতা। প্রতিটি...