সংবাদ শিরোনাম

 

টাঙ্গাইলের সখীপুরে অধ্যক্ষ হত্যার ১১ বছর পর দুজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার সকাল ১১টার দিকে টাঙ্গাইলের স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক শাহানা হক সিদ্দিকা এ রায় দেন।

 

দণ্ডিতরা হলেন সখীপুরের ফুলবাগ গোবরচাকা গ্রামের মিনহাজুর রহমান মিন্টু ও আব্দুল মালেক শুকুর। তাদের মধ্যে শুকুর পলাতক।

২০১১ সালের ২০ অক্টোবর দুপুরে সখীপুরের বৈল্লারপুর এলাকায় পূর্বশত্রুতার জেরে মিনহাজুর রহমান মিন্টুর নেতৃত্বে জামালকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ওই দিনই জামালের স্ত্রী পারভীন বেগম সখীপুর থানায় হত্যা মামলা করেন।

 

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ মহসিন সিকদার কালবেলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ২০১১ সালের ২০ অক্টোবর দুপুরে সখীপুরের পলাশতলী মহাবিদ্যালয় থেকে বাড়ির দিকে রওনা হন কলেজটির অধ্যক্ষ জামাল হোসেন ঠান্ডু। বৈল্লারপুর এলাকায় পূর্বশত্রুতার জেরে মিনহাজুর রহমান মিন্টুর নেতৃত্বে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

 

ওই দিনই জামালের স্ত্রী পারভীন বেগম সখীপুর থানায় হত্যা মামলা করেন। ২০১২ সালের ২৬ ডিসেম্বর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আইয়ুব আলী পাঁচজনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

 

আদালত দুজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একই সঙ্গে আড়াই লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় তিনজনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। খালাসপ্রাপ্তরা হলেন শমশের আলী, মোহাম্মদ মাসুদ ও মোহাম্মদ নান্নু মিয়া।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম