সংবাদ শিরোনাম

 

করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ধরনের নতুন দুই সাব-ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআর’বি)। গত কয়েক দিনে করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখীর জন্য নতুন এ দুই উপ-ধরন দায়ী বলে জানিয়েছে তারা।

 

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে আইসিডিডিআর’বির ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়েছে। করোনায় নতুন করে আক্রান্তদের নমুনা পরীক্ষা করে এসব তথ্য জানা গেছে।

 

আইসিডিডিআর’বি জানিয়েছে, করোনার গতি-প্রকৃতি নির্ণয়ে গত ২৩ জুলাই থেকে ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩৮টি জিনোম সিকোয়েন্স করা হয়েছে। এতে করে ঢাকায় ওমিক্রনের দুটি নতুন সাব-ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। জিনোম সিকোয়েন্সে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টগুলোর মধ্যে ২৬টি ওমিক্রন বিএ.৫ এবং ১২টি ওমিক্রন বিএ.২ সাব-ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

 

ওয়েবসাইটের তথ্যে বলা হয়, প্রাথমিকভাবে ঢাকাসহ সারা দেশে ওমিক্রনের বিএ.৫ সাব-ভ্যারিয়েন্ট সবচেয়ে বেশি প্রচলিত ছিল। কিন্তু গত তিন সপ্তাহে তা বিএ.৫ থেকে বিএ.২-তে স্থানান্তরিত হয়েছে, যা একটি বড় পরিবর্তন। একই সময়ে বিএ.২.৭৫ ও বিজে.১ (যা মূলত বিএ.২ থেকে উৎপন্ন হয়েছে) নামের নতুন দুটি সাব ভ্যারিয়েন্টের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

 

 

অপরদিকে, ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপিং সায়েন্স অ্যান্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভসের (আইডিইএসএইচআই) এক প্রতিবেদনেও একই চিত্র উঠে এসেছে।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম