সংবাদ শিরোনাম

 

 

দুই মহাদেশের দুই চ্যাম্পিয়ন দলের কাছ থেকে রোমাঞ্চকর মহারণের আশাই করে রেখেছিল ফুটবল বিশ্ব। তবে মাঠের লড়াইয়ে আদৌ তার ছিটেফোঁটাও দেখা যায়নি। শুরুর দিকে লড়াই করলেও আর্জেন্টিনার ফুটবলারদের গতি, একাগ্রতা ও পাসিং ফুটবলের সঙ্গে আর পেরে ওঠেনি ইতালি। শেষপর্যন্ত ইতালিকে হতাশ করে ফিফার বিশেষ টুর্নামেন্ট ফিনালিসিমার শিরোপা জয়ের উল্লাসে মাতল আর্জেন্টিনা।

বুধবার (১ জুন) রাতে লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইতালিকে ৩-০ গোলে হারিয়ে একবিংশ শতাব্দীতে প্রথমবার হওয়া ফিনালিসিমা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আর্জেন্টিনা। একই সঙ্গে ২০১৯ সালের জুলাই থেকে টানা ৩২ ম্যাচ অপরাজিত থাকলেন লিওনেল মেসিরা।

ম্যাচের ৫৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখেছিল আর্জেন্টিনা। মেসিরা মোট শট নেয় ১৭টি, যার ভেতর ৯টি লক্ষ্য বরাবর ছিল। অপরদিকে, ইতালি নিতে পারে ৭টি শট, লক্ষ্যে ছিল ৩টি শট। তবে ম্যাচটি ছিল পুরো আর্জেন্টিনাময়। প্রথম আর্ধের চেয়ে দ্বিতীয় আর্ধের পুরোটা সময় আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে লিওনেল স্ক্যালোনির দল।

ম্যাচের ২৮ মিনিটে জিওভান্নি ডি লরেঞ্জোকে গতির লড়াইয়ে হারিয়ে বাঁ প্রান্ত দিয়ে দৌড়ে বল নিয়ে ছুটে যান মেসি। এরপর ডি বক্সের ভেতরে স্ট্রাইকার লাউতারো মার্টিনেজকে বল বাড়ালে গোল করতে ভুল করেননি তিনি।

বিরতির আগে যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে মার্টিনেজকে আটকাতে ব্যর্থ হন লিওনার্দো বোনুচ্চি। তার বাড়ানো লম্বা পাসে বল নিয়ে জিয়ানলুইজি ডোন্নারুমার মাথার উপর দিয়ে নেয়া বাম পায়ের চিপ শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ধার আরও বাড়ায় আর্জেন্টিনা। ৬০তম মিনিটে ডি মারিয়ার শট প্রতিহত করেন ডোনান্নারুমা। দুই মিনিট পর মেসির কর্ণার থেকে পাওয়া বল দারুণ এক ভলি করেছিলেন ডি মারিয়া। তার সেই দারুণ ভলি ঠেকিয়ে দেন ইতালিয়ান গোলরক্ষক ডোনারুম্মা। ৬৫তম মিনিটে বাম পায়ের দারুণ শটও জালের দেখা পায়নি মেসি।

৬৭তম মিনিটে রদ্রিগো ডি পলের কাছ থেকে বল পাওয়া মেসির দূরপাল্লার শটও দারুণভাবে প্রতিহত করেন ডোনান্নারুমা। চার মিনিট পরও ঘটে একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি।

যোগ করা সময়ের চতুর্থ মিনিটে মেসির পাসে বল ধরে ভেতরে ঢুকে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করে ইতালির কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন জিওভান্নি লো সেলসোর বদলি নামা দিবালা।

জাতীয় দলের হয়ে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলে ফেলেছেন ইতালি জর্জিও কিয়েল্লিনি। বড় হারের তিক্ত স্বাদ নিয়েই নীল জার্সি তুলে রাখলেন অভিজ্ঞ এই ডিফেন্ডার।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম