সংবাদ শিরোনাম

 

 

আরও ১১টি নতুন ‘নগদ’-সেবা উদ্বোধনের ভেতর দিয়ে মোট ৪৫টি স্থানে সেবাকেন্দ্র চালু করল বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’। বাংলাদেশের আরও ১১টি স্থানে ‘নগদ’-সেবা চালু করার ফলে গ্রাহকেরা এখন আরও বেশি সেবা পাবেন বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

 

গ্রাহকদের নিরবচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান দিতে এবং তাদের কাজ আরও সহজ করে দিতে ৩৪টি ‘নগদ’-সেবা থেকে কাজ করছিল ‘নগদ’। এবার সেই সেবা আরও বাড়ানোর জন্য যুক্ত হলো আরও ১১টি সেবাকেন্দ্র। নতুন এই ১১টি সেবাকেন্দ্র হলো: দিনাজপুর, ঝিনাইদহ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ফেনী, ভোলা, পটুয়াখালী, নেত্রকোনা, সিরাজগঞ্জ, নরসিংদী, রাঙামাটি ও চাঁদপুর জেলার প্রধান ডাকঘর।

 

সবমিলিয়ে এখন ৪৫টি নগদ সেবাকেন্দ্র চালু থাকছে গ্রাহকদের জন্য। দিনাজপুর, ঝিনাইদহ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ফেনী, ভোলা, পটুয়াখালী, নেত্রকোনা, সিরাজগঞ্জ, নরসিংদী, রাঙামাটি, চাঁদপুর, ঢাকা জিপিও, খুলনা জিপিও, চট্টগ্রাম জিপিও, রাজশাহী জিপিও, বরিশাল, টঙ্গি, বনানী, খিলগাঁও, মিরপুর, সিলেট, নারায়ণগঞ্জ, রংপুর, কুমিল্লা, যশোর, ময়মনসিংহ, গাজীপুর, বগুড়া, জিগাতলা, উত্তরা, সাভার, ফরিদপুর, পঞ্চগড়, টাঙ্গাইল, কক্সবাজার, বান্দরবান, গোপালগঞ্জ, নোয়াখালী, মাগুরা, বরগুনা, মানিকগঞ্জ, জামালপুর, নওগাঁ, সাতক্ষীরা ও নগদ প্রধান কার্যালয়ে চালু রয়েছে নগদ সেবা।

 

 

 

 

এরমধ্যে ‘নগদ’ প্রধান কার্যালয়ে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে ৪টা পর্যন্ত সেবা পাওয়া যাবে। এ ছাড়া সকল নগদ-সেবা গ্রাহকের জন্য সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

 

নতুন এই ১১টি নগদ-সেবা উদ্বোধনের ফলে বাংলাদেশের ৮টি বিভাগেই নগদ-এর এই সেবা বিস্তৃত হলো। এ ছাড়া দেশের ৩৭টি জেলায় এখন নগদ-সেবা পাবেন গ্রাহকেরা।

 

এই সেবা কেন্দ্রগুলোতে গ্রাহকেরা নিজের পিন সেট বা রিসেট করায় সহায়তা পাবেন। এ ছাড়া কেওয়াইসি রিসাবমিশন ও তথ্য আপডেট করা যাবে এখানে। ‘নগদ’ অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত সকল সেবা এখানে পাবেন। এ ছাড়া গ্রাহক তার যেকোনো অভিযোগ ও মতামত এই সেবাকেন্দ্রে জানাতে পারবেন।

 

সাধারণত এসব সেবাকেন্দ্রে প্রতিদিনি গড়ে ১২০ জন গ্রাহককে সেবা দেওয়া হয়ে থাকে। এখন প্রতিদিন গড়ে ৫ হাজার ৪০০ জন গ্রাহক বিভিন্ন নগদ-সেবায় সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। সরকারি ভাতা বিতরণের সময় প্রতিটি সেবাকেন্দ্র গড়ে প্রতিদিন ১৫০০ গ্রাহককে সেবা দিয়ে থাকে। সারা দেশে গড়ে প্রতিদিন এরকম সময়ে প্রায় ৬৮ হাজার গ্রাহক সরাসরি সেবা পাবেন এই কেন্দ্রগুলোতে। সেই সময় নগদ-সেবার লোকবল আরও বৃদ্ধি করা হয়ে থাকে।

 

 

 

নতুন এসব সেবাকেন্দ্র চালু করা সম্পর্কে বলতে গিয়ে নগদ-এর প্রধান বিপণন কর্মকর্তা শিহাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নগদ সবসময়ই গ্রাহকের কাজ আরও সহজ করে তোলার চেষ্টায় থাকে। এই চেষ্টা থেকে আমরা নানা ধরনের ডিজিটাল সেবা নিয়ে এসেছি। এখন গ্রাহক নিমিষেই ঘরে বসে নগদ অ্যাকাউন্ট খোলাসহ সব সেবা নিতে পারেন। তারপরও আমরা স্বশরীরে গ্রাহকদের সেবা দেওয়ার কেন্দ্র বাড়াচ্ছি। আমরা চাই আমাদের গ্রাহকেরা যেন সব ধরনের প্রয়োজনে নগদ-কে পাশে পান। এসব সেবা কেন্দ্রে তাদের প্রয়োজনীয় সব সেবা থাকবে। আর এর বাইরেও সব গ্রাহকের জন্য আমাদের হটলাইন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকছে।’

 

 


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম