| |

সর্বশেষঃ

তিন আসনেই খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বাতিল

আপডেটঃ ৯:২৫ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ০৮, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিল বহাল রয়েছে নির্বাচন কমিশনের আপিলেও। শনিবার বিকালে এই সিদ্ধান্ত জানায় ইসির আপিল কর্তৃপক্ষ।

এর আগে শনিবার দুপুরে আপিলের শুনানি নিলেও সিদ্ধান্ত সঙ্গে সঙ্গে দেয়নি নির্বাচন কমিশন। শুনানির পর ইসির আপিল কর্তৃপক্ষ বলেছে, বিকালে এই বিষয় সিদ্ধান্ত জানাবেন তারা।

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডের পর কারাবন্দি খালেদা জিয়া একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না। কারাগারে থেকেই ফেনী-১, বগুড়া-৬ ও বগুড়া-৭ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী হতে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

কিন্তু দণ্ডিত হওয়ায় বাছাইয়ের সময় রিটার্নিং কর্মকর্তারা সেই মনোনয়নপত্রগুলো বাতিল করায় ইসিতে আপিল করেন তিনি।

শনিবার নির্বাচন ভবনে আপিলের তৃতীয় ও শেষ দিনের শুনানিতে সিইসি কে এম নূরুল হুদা নেতৃত্বাধীন আপিল কর্তৃপক্ষের কাছে তিন আসনের তিনটি আবেদন একসঙ্গে শুনানি নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন খালেদার আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী।

দুপুরে ১২ টা ৩৮ মিনিটে শুরু হয়ে ২২ মিনিট চলে শুনানি। শুনানির সময় সিইসি নূরুল হুদা খালেদার আইনজীবীকে সুনির্দিষ্ট বক্তব্য তুলে ধরতে বলেন। নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলামও বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয় জানতে চান আইনজীবীর কাছে।

শুনানি শেষে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শুনে রায় পরে জানানো হবে। ৩৮৫, ৪৭৮ ও ৪৪০ আপিল আবেদন পেন্ডিং রাখা হল। কমিশন পুনর্বিবেচনা করে শুনানি গ্রহণ করে বিকাল ৫টায় রায় দেবে।

বিএনপির আইনজীবী জয়নুল আবেদীন সাংবাদিকদের বলেন, আমরা আশা করি, রিটার্নিং অফিসার যে অবৈধ সিদ্ধান্ত দিয়েছিল, সে বেআইনি সিদ্ধান্তটা ইসি বাতিল করবেন। ৫টায় রায় দেবে বলেছে। আমরা আশা করছি, নিরপেক্ষভাবে রায় দেবে ইসি; খালেদা জিয়া ভোটে অংশ নিতে পারবেন।

খালেদা জিয়ার মতোই মামলার কারণে বিএনপির চারজন ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু ও যশোরের সাবিরা সুলতানার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। আপিল করেও প্রার্থিতা ফেরত পাননি তারা।

আরোও পড়ুন...

HostGator Web Hosting