| |

সর্বশেষঃ

‘অভিনন্দন নুসরাত, সনাতন ধর্মে তোমাকে স্বাগত’

আপডেটঃ ৩:৪৭ অপরাহ্ণ | জুন ২০, ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদক : তুরস্কে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহান। বুধবার ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েন তিনি। বৃহস্পতিবার ভোরে কয়েকটি ছবি পোস্ট করে সেই খবর নায়িকা ঘোষণা করেন টুইটারে। ক্যাপশনে লিখেন, ‘নিখিল জৈনের সঙ্গে সারাজীবন সুখে থাকার দিকে অগ্রসর হলাম।’

মুসলমান ধর্মের নুসরাত জাহান বিয়ে করেছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বী নিখিল জৈনকে। তাই নায়িকার পোস্ট করা বিয়ের একটি ছবিতে কুণ্ডু সৌভিক নামে সোশ্যাল মিডিয়ার এক ভক্ত মন্তব্য করেছেন, ‘অভিনন্দন নুসরাত। সনাতন ধর্মে তোমাকে স্বাগত। নিকাহ হালালা ও তিন তালাক থেকে মুক্তি পেয়ে তোমার জীবন হোক মুক্ত বিহঙ্গের মত!’

পরিবার, আত্মীয় স্বজন ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবের উপস্থিতিতে নুসরাত ও নিখিল সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন তুরস্কের বোড্রাম শহরে। গত ১৬ জুন তৃণমূলের নবনির্বাচিত সাংসদের সঙ্গে তুরস্কে উড়ে যান তার বাবা-মা, বোন ও ঘনিষ্ঠ আত্মীয় স্বজনেরা। বিয়েতে আরও উপস্থিত ছিলেন নুসরাতের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী ও সহকর্মী তথা যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী।

আগামী ৪ জলাই কলকাতায় রিসেপশন পার্টি রেখেছেন নবদম্পতি। সেখানে টলিউড থেকে রাজনৈতিক মহল- নানা বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সমারোহে চাঁদের হাট বসবে বলে মনে করা হচ্ছে। সদ্য শেষ হওয়া লোকসভা নির্বাচনে বসিরহাট কেন্দ্র থেকে বিরাট ব্যবধানে জয়লাভ করেন নুসরাত জাহান। বড় ব্যবধানে জিতেছেন মিমিও। তবে প্রথমবারের দুই সাংসদ বিয়ের কারণে লোকসভায় শপথ নিতে পারেননি।

প্রসঙ্গত, নিখিল জৈনের প্রথম হলেও অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের এটি দ্বিতীয় বিয়ে। এর আগে গোপনে তিনি বিয়ে করেছিলেন বিক্রম নামে এক ব্যবসায়ীকে। বছর দুয়েক তার সঙ্গে এক ছাদের নিচে থাকার পর চলতি বছরের জানুয়ারিতে আদালতের মাধ্যমে তাদের ডিভোর্স হয়। এই ডিভোর্স পাওয়ার জন্য নুসরাতের অবশ্য বড় অংকের টাকা দিতে হয় বিক্রমকে। কারণ ডিভোর্সটা চেয়েছিলেন নুসরাতই। আর তাতে টাকার বিনিময়ে সম্মত হন বিক্রম।

HostGator Web Hosting