| |

সর্বশেষঃ

শনিবার সোয়া দুই কোটি শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন এ ক্যাপসুল

আপডেটঃ ৪:১২ অপরাহ্ণ | জুন ২০, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ২২ জুন শনিবার সারা দেশে পালিত হবে জাতীয় ভিটামিন এ ক্যাপসুল ক্যাম্পেইন। এ কর্মসূচির আওতায় ৬-১১ মাস বয়সী ২৬ লাখের বেশি শিশুকে নীল রঙয়ের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। একইসঙ্গে ১২-৫৯ মাস বয়সী এক কোটি ৯৩ লাখ ৪৬ হাজার শিশুকে একটি লাল রঙয়ের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সারাদেশের এক লাখ ২০ হাজার কেন্দ্রে এই কর্মসূচি চলবে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) স্বাস্থ্য মন্ত্রাণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি আরও জানান, ২০ হাজার ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হবে। এ জন্য বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চ ও ফেরিঘাট, ব্রিজের টোল প্লাজা (বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু, দাউদকান্দি ও মেঘনা সেতু), বিমানবন্দর, রেলস্টেশন ও খেয়াঘাটে দুই লাখ ৮০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে।

সংবাদ সম্মেলনে ভিটামিন এ ক্যাপসুলের মান নিয়ে বিভিন্ন সময় হওয়া সমালোচনার বিষয়টি উল্লেখ করে এবারের ক্যাপসুলের মান সম্পর্কে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এবারের ভিটামিন এ ক্যাপসুলের মান অত্যন্ত ভালো। অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এই ক্যাপসুল খাওয়ানো হচ্ছে। তবে একটি শ্রেণি সরকারের এই কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্ত করতে মানুষকে বিভ্রান্ত করতে পারে। বিভ্রান্তিতে কান না দিয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, দেশের একটি শিশুও যেন ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো ক্যাম্পেইন থেকে বাদ না পড়ে সে জন্য কাজ করা হচ্ছে। তবে অসুস্থ শিশুকে এবং খালি পেটে কোনো শিশুকে এ ক্যাপসুল খাওয়াবেন না। শিশুকে অবশ্যই ভরাপেটে ক্যাপসুল খাওয়াবেন।

মন্ত্রী এসময় শিশুদের প্রতি যন্ত্র নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বর্তমানে দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়েছে। এ অবস্থায় শিশুদের মশার কামড় থেকে রক্ষা করতে মশারি ব্যবহার করুন। একইসঙ্গে ডায়রিয়ার হাত থেকে বাঁচতে বিশুদ্ধ পানি পানেরও পরামর্শ দেন তিনি।

এসময় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

HostGator Web Hosting