| |

সর্বশেষঃ

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে কাজ করবে বিশ্বব্যাংক : অর্থমন্ত্রী

আপডেটঃ ৬:৫০ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : বন্ড মার্কেট ও শেয়ারবাজারের উন্নয়নে বিশ্বব্যাংক কাজ করবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ব্যাংকিং খাতের উন্নয়নেও বিভিন্ন পরামর্শ দেবে তারা।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর শেরে বাংলানগরে নিজ কার্যালয়ে বিশ্বব্যাংকের আঞ্চলিক পরিচালক জুবিদা খেরুস অ্যালাউয়্যার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের মন্ত্রী এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বন্ড মার্কেট ও শেয়ারবাজারের উন্নয়নে বিশ্বব্যাংক কাজ করবে। যেসব জায়গায় আমরা পিছিয়ে রয়েছি, সেসব জায়গার উন্নয়নে বাংলাদেশকে বিশ্বব্যাংক সহায়তা করবে। বিশ্বব্যাংক আরও বেশি বেশি করে সাহায্য করতে প্রস্তুত। এজন্য আমাদের ক্যাপাসিটি বৃদ্ধি করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা অর্থনৈতিকভাবে যেখানে আছি সেখান থেকে আরও উন্নতি করতে অনেক শক্তি ব্যয় করতে হবে। এসব ক্ষেত্রেও বিশ্বব্যাংক আমাদের সহযোগিতা করবে।

আমাদের বন্ড মার্কেটটা টোটালি ডেভেলপ করা হয়নি মন্তব্য করে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, এ মার্কেটটার উন্নয়ন করতে হবে। এ মার্কেটের উন্নয়নে সরকারি-বেসরকারি উভয় সেক্টরকেই এগিয়ে আসেত হবে। বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন হলে শেয়ারবাজারেরও উন্নয়ন হবে।

বন্ড মার্কেটের উন্নয়নে বিভিন্ন ফিস কমানো হয়েছে। বন্ড মার্কেটকে প্রাণবন্ত (ভাইব্রেট) করার জন্য যা যা করা দরকার তাই করা হবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, বন্ড মার্কেটকে আমরা ডেভেলপ করবই।

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে কীভাবে বিশ্বব্যাংক কাজ করবে এবং কখন থেকে এটা বাস্তবায়ন হবে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাংকের কাজ বাংলাদেশে চলমান। তাদের ৪৫টি প্রজেক্ট বর্তমানে কাজ করছে।

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে কীভাবে কাজ করবে-এ বিষয়ে ব্রিফিংকালে উপস্থিত বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিনিধি বলেন, আমরা কিছু টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স, রেগুলেটরি রিফর্ম এবং পলিসির উন্নয়নে কাজ করব।

শেয়ারের উন্নয়নের পুরো কাজ সমন্বিতভাবে করা হবে। সরকার, বিশ্বব্যাংক এবং যারা এ বিষয়ে আগ্রহী- সবাই মিলে এ কাজগুলো করব বলে জানান অর্থমন্ত্রী।।

বন্ড মার্কেট প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, বন্ড মার্কেটের উন্নয়নে কর্পোরেট সেক্টরের প্রভিডেন্ড ফান্ডগুলোও নিয়ে আসা হবে। এসব বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীও একমত প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের অর্থনীতিতে আর্থিক খাতের উপাদান কম। উপাদান কম থাকলে ছোট হয়ে যায়। অর্থনীতিকে বেগমান করতে হলে আমাদের অনেক টুলস দরকার। এগুলোই করা হচ্ছে।

‘সরকার সবসময় পুঁজিবাজারের সঙ্গে রয়েছে। পুঁজিবাজারে সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে। আমাদের কাজ হচ্ছে তাদেরকে সাপোর্ট দেয়া, সেটা আমরা দিয়েছি। আগামীতে ভালো ভালো সরকারি কোম্পানিকে পুঁজিবাজারে দেয়া হবে’, বলেন অর্থমন্ত্রী।

HostGator Web Hosting