| |

সর্বশেষঃ

বাবাকে দেখতে যাওয়ার পথে প্রাণ গেল দুই বোনসহ ৬ জনের

আপডেটঃ 10:33 pm | July 06, 2020

দিনাজপুর সংবাদদাতা : দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিসি) বাসের চাপায় ৭ জন ভ্যানযাত্রী নিহত হয়েছেন। যেখানে একই পরিবারের ৬ জন রয়েছেন।

সোমবার দুপুর আড়াইটায় দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়কের দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার পঁচিশ মাইল নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ভাবকী গ্রামের ইদ্রিস আলীর স্ত্রী নাসরিন বেগম (৫০), তার মেয়ে রূপা খাতুন (৮), দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার দেবীপুর গ্রামের মৃত আব্দুল গনির পুত্র আবুল হোসেন (৬০), আবুল হোসেনের স্ত্রী আসমা খাতুন (৪৫), তার নাতনী নামিয়া খাতুন (৮), বীরগঞ্জ উপজেলার মুড়িয়ালা গ্রামের আতিয়ার রহমানের স্ত্রী নারগিস আক্তার (৩৫) এবং ভ্যানচালক। নিহত ভ্যান চালকের নাম জানা যায়নি।

দিনাজপুরের দশমাইল হাইওয়ে থানার ওসি জি.এম নুর ঘটনাটি নিশ্চিত করে জানান, বিআরটিসির বাসটি পঞ্চগড় থেকে রংপুরের দিকে যাচ্ছিল। পথে পঁচিশ মাইল নামক স্থানে ৭ আরোহীসহ একটি রিকশাভ্যানকে চাপা দেয় বাসটি।

নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, নাসরিন বেগম ও তার ছোটবোন আসমা খাতুন পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সোমবার তাদের অসুস্থ বাবা আখিমউদ্দীনকে ভ্যানযোগে দেখতে যাচ্ছিলেন বীরগঞ্জের মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের রনপাড়া গ্রামে। কিন্তু অসুস্থ বাবাকে দেখতে যাওয়া হলো না আদরের দুই মেয়ের। পরিবারের ৬ সদস্যই এখন না ফেরার দেশে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘটনাস্থলেই রিকশাভ্যানের ৪ জন যাত্রী নিহত হয় এবং বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও ৩ জন নিহত হয়। ঘটনার পর বীরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতদের উদ্ধার করে।

এদিকে এই ঘটনার পর স্থানীয়রা দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে বিকেল সাড়ে ৪ টায় পুলিশ যান চলাচল স্বাভাবিক করে দিলে ২ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর যান চলাচল আবার স্বাভাবিক হয়।

HostGator Web Hosting