| |

সর্বশেষঃ

নান্দাইলে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, ভাসুর-জায়ের ৫ দিনের রিমান্ড

আপডেটঃ 5:07 pm | August 12, 2020

নান্দাইল সংবাদদাতা : ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় সাবিনা ইয়াসমিন (২৩) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ভাসুর-জাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) দুপুরে গ্রেপ্তারদের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে ময়মনসিংহ বিজ্ঞ আদালতে পাঠিয়েছে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ।

এর আগে সোমবার (১০ আগস্ট) দিবাগত রাতে গাজীপুর জেলা সদর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরের প্রত্যন্ত একটি গ্রাম থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তাররা হলো- গৃহবধূ সাবিনা ইয়াসমিনের ভাসুর ইয়াসিন (৪৫) ও জা চন্দনা (৩৫)।

পুলিশ জানায়, গৃহবধূ সাবিনা ইয়াসমিনের ফাঁসিতে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় নিহতের মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের ১৩ দিন পর তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার ও মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সোমবার আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের সত্যতা স্বীকার করে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর আহম্মেদ বলেন, ‘গ্রেপ্তার আসামিদের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে ময়মনসিংহ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামিদেরও দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।’

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুলাই নান্দাইল উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের বাতুয়াদি গ্রামের অটোরিকশাচালক স্বামী খায়রুল মিয়ার বাড়িতে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় গৃহবধূ সাবিনা ইয়াসমিনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় স্বামীর বাড়ির লোকজন এটি আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করলেও সাবিনার মায়ের দাবি, ‘এটি ছিল পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।’ এরই ধারাবাহিকতায় সাবিনার মা বাদী হয়ে থানায় মামলাও করেন।

একপর্যায়ে গত বুধবার (৫ আগস্ট) হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ৩ দফা দাবি নিয়ে নান্দাইল উপজেলা পরিষদ চত্বরে এক নাগরিক অবস্থানের ডাক দেয় যৌন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীজোট। এ সময় হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদানের মাধ্যমে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটামও দেওয়া হয়। সেই সাথে স্মারকলিপি প্রদান করা হয় নান্দাইলের ইউএনও বরাবরে।

পরবর্তীকালে রবিবার (৯ আগস্ট) সকাল ১০টায় ফের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে ইউএনও অফিস অভিমুখে এক গণপদযাত্রা ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি পালন করে যৌন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীজোট। এ সময় যৌন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীজোট নান্দাইল ইউএনও বরাবর তিনটি দাবি জানান। দাবিগুলো হলো-

১. সাবিনা ইয়াসমিনের মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার আসামিদের আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার। ২. ভিক্টিমের পরিবারের প্রতি পুলিশ প্রশাসনের সহায়তামূলক ভূমিকা পালন। ৩. সাবিনার মায়ের বক্তব্য আমলে নিয়ে পুলিশ প্রশাসনকে কার্যকরী ভূমিকায় এগিয়ে আসতে হবে।

ওই সময় দ্রুততার সাথে এই দাবি পূরণ না হলে আগামী বুধবার (১২ আগস্ট) থেকে নান্দাইল উপজেলা কার্যালয়ের সামনে সাবিনার মায়ের প্রতিবাদী অবস্থানসহ পৃথক কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে এবং ময়মনসিংহ পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয় অভিমুখে ন্যায়যাত্রা কর্মসূচি ঘোষণা করবে বলে জানায় সংগঠনটি।

HostGator Web Hosting