| |

সর্বশেষঃ

আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন এমপি পাপুলের স্ত্রী-কন্যা

আপডেটঃ 5:35 pm | December 27, 2020

নিজস্ব প্রতিবেদক : অবৈধ সম্পদ অর্জন ও টাকা পাচারের অভিযোগের মামলায় কুয়েতে গ্রেফতার লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের স্ত্রী সংসদ সদস্য সেলিনা ইসলাম ও মেয়ে ওয়াফা ইসলাম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন।

রোববার (২৭ ডিসেম্বর) ঢাকার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন তারা।
শুনানি শেষে বিচারক আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাদের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন।

গত ২২ ডিসেম্বর বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে আগাম জামিন চাইতে গেলে তাদের ২৮ ডিসেম্বরের মধ্যে আত্মসমর্পণের আদেশ দেন উচ্চ আদালত। সে অনুযায়ী রোববার বিকেলে তারা আত্মসমর্পণ করেন।

গত ১০ ডিসেম্বর তাদের আগাম জামিন আবেদন খারিজ করে ১০ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। সে মোতাবেক তারা ২০ ডিসেম্বর মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে আবেদন দেন। কিন্তু এর মধ্যে আদালতে ভেকেশন (ছুটি) শুরু হয়ে যায়। পরে তারা হাইকোর্টে একটি কারেকশন পিটিশন দায়ের করেন। সে আবেদন মঞ্জুর করে তাদের ২৮ ডিসেম্বরের মধ্যে অবকাশকালীন আদালতে আত্মসমপর্ণের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

গত ২৬ নভেম্বর অবৈধ সম্পদ অর্জন ও টাকা পাচারের অভিযোগের মামলায় কুয়েতে গ্রেফতার লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের স্ত্রী সংসদ সদস্য সেলিনা ইসলাম ও মেয়ে ওয়াফা ইসলাম হাইকোর্টে আগাম জামিন চেয়ে আবেদন করেছিলেন।

গত ১১ নভেম্বর দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন বাদী হয়ে দুই কোটি ৩১ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ ও ১৪৮ কোটি টাকার অর্থ পাচারের অভিযোগে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শহিদ ইসলাম পাপুল ও তার স্ত্রী সংরক্ষতি আসনের এমপি সেলিনাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলার আসামিরা হলেন-পাপুল, তার স্ত্রী সেলিনা ইসলাম, মেয়ে ওয়াফা ইসলাম ও সেলিনার বোন জেসমিন প্রধান৷

অর্থ ও মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতের কারাগারে আছেন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শহিদ ইসলাম পাপুল৷

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি কাজী শহীদুল ইসলাম পাপুলের বিরুদ্ধে মানবপাচারসহ জ্ঞাত আয়বহির্ভূত উপায়ে শত শত কোটি টাকা অর্জন করে হুণ্ডির মাধ্যমে বিদেশে পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক।

HostGator Web Hosting