| |

সর্বশেষঃ

লকডাউনেও সড়কে যানবাহনের চাপ

আপডেটঃ 2:44 pm | May 02, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে লকডাউনের ১৯তম দিন রোববার (২ মে ) চলছে। এদিন রাজধানীতে দেখা যায়, গণপরিবহন ছাড়া সব পরিবহন চলছে। যানজটও তৈরি হচ্ছে কোথাও কোথাও। চেকপোস্টেও ঢিলেঢালা তল্লাশি চালাতে দেখা গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গণপরিবহন কম থাকায় সড়কে মানুষের প্রচণ্ড ভিড়। শপিংমল এবং মার্কেটে যেতে পরিবার নিয়ে বের হয়েছেন অনেকে।

বেলা ১১টায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ী মোড়ে দেখা যায়, যানবাহনের বেশ চাপ। সেখানে কথা হয় কাজলার বাসিন্দা ব্যবসায়ী ওবায়দুল হকের সঙ্গে। তিনি বলেন, দেশে লকডাউন চলছে। রাস্তায় বের হলে কিন্তু লকডাউন বোঝা যাচ্ছে না। সরকারি অফিস বাদে সবকিছুই এখন খোলা। রমজান মাস হওয়ায় মানুষ এসব বিধি-নিষেধ মানছে না।

এদিন রাজধানীর টিকাটুলি মোড়, গুলিস্তান, জিপিওসহ বিভিন্ন এলাকায় একই চিত্র দেখা যায়। এসব এলাকায় গণপরিবহন ছাড়া সব ধরনের যানবাহনে যাত্রী ছিল। কোথাও কোথাও যানবাহনের চাপে যানজট সৃষ্টি হয়।

বেলা সাড়ে ১১ টায় গুলিস্তান ফুলবাড়িয়া থেকে বংশাল চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়কে গাড়ির জট। সিএনজি চালিত অটোরিকশা, রিকশা, মোটরসাইকেল, লেগুনা ও বাইকেলে নগরবাসী ছুটছে নিজ নিজ কর্মে। ট্রাফিক সিগন্যালে তদারকি ছিল খুবই কম।

গুলিস্তানে কথা হয় অটোচালক আবুল কালামের সঙ্গে। তিনি বলেন, অটো নিয়ে সকাল থেকে, সদরঘাট, প্রেসক্লাব, বনানী, রামপুর মতিঝিল এলাকা ঘুরে এলাম। গণপরিবহন ছাড়া সব ধরনের যানবাহন চলছে। মার্কেটসহ ফুটপাতের সব দোকান খোলা।

তিনি বলেন, লকডাউন হলে কি হবে নগরবাসীর বিভিন্ন কাজে সড়কে বের হচ্ছেন। এ কারণে যাত্রী পাওয়া যাচ্ছে।

গুলিস্তান বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় পীর ইয়ামিনী মার্কেটের ব্যবাসায়ী আব্দুল্লাহ মাহামুদের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমার বাসা সাইনবোর্ড। ব্যবসায়ীক কাজে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াত করি। মার্কেট খুললেও এখনো গণপরিবহন খোলেনি। এ কারণে আমাদের চলাচলে কয়েকগুণ ভাড়া বেশি দিতে হচ্ছে।

এদিকে, গুলিস্তান, জিপিও, বাইতুল মোকাররম, পল্টনের দুইপাশ থেকে জিপিও পর্যন্ত সড়কে সব ধরনের দোকানপাট খুলেছে। তবে গরমের কারণে ক্রেতাদেরও ভিড় কিছুটা কম।

জিপিও চেকপোস্টে দায়িত্বরত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফারুক হোসেন বলেন, রাজধানীতে গণপরিবহন ছাড়া বিভিন্ন যান চলাচল করছে। রোজা ও প্রচণ্ড গরমে যে যার প্রয়োজনে বের হচ্ছেন আবার বাসায় ফিরে যাচ্ছেন। মাস্ক ব্যবহার না করাসহ কেউ আইন লঙ্ঘন করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

HostGator Web Hosting