| |

সর্বশেষঃ

দেশে টিকা উৎপাদনের সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী দেবেন : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আপডেটঃ 6:47 pm | May 17, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে টিকা উৎপাদনের সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেবেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি। তিনি বলেন, ‘দেশে টিকা উৎপাদনের অনুমোদন দেওয়া অনেক বড় সিদ্ধান্ত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

আজ সোমবার (১৭ মে) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক শেষে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, যে কোনো টিকা ব্যবহার বা তৈরি করতে হলে আমাদের ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের অনুমোদন লাগে এবং সরকারেরও অনুমোদন লাগে। ঔষধ প্রশাসনকে আবেদন করলে তারা যাচাই-বাছাই করে। আমরা যেহেতু নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, টিকা ক্রয় করব; আবার যদি সঠিক প্রস্তাব আসে তা হলে দেশে উৎপাদন করব। উৎপাদন করতে হলে ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানিগুলোর সক্ষমতা যাদের আছে তাদের এগিয়ে আসতে হবে। অনেকেই এগিয়ে আসছে। তাদের বিষয়গুলো ঔষধ প্রশাসন দেখছে। দেখে আমাদের কাছে প্রস্তাবনা পাঠাবে এবং তার পর সিদ্ধান্ত হবে। এখনো তেমন কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

জাহিদ মালেক বলেন, যারা আবেদন করেছে, তাদের বিষয়ে প্রতিবেদন আমাদের কাছে পাঠাবে। সেটি দেখে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারব। এটা অনেক বড় সিদ্ধান্ত। এই সিদ্ধান্ত ফাইনাল আসবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে।

তিনি বলেন, এখন আমাদের চেষ্টা থাকবে টিকা ক্রয় করে দেওয়ার। এটি সবচেয়ে দ্রুত প্রক্রিয়া। তৈরি করা একটা দীর্ঘ প্রক্রিয়া। যাদের ইতোমধ্যে সক্ষমতা আছে, তাদেরই চার-পাঁচ মাস লাগবে উৎপাদন করতে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনার ভারতীয় ধরন খুব আক্রমণাত্মক। ভারতের অবস্থার উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত সীমান্ত আরও কিছু দিন বন্ধ রাখতে হবে। দূরপাল্লার বাস, লঞ্চ ও রেল যোগাযোগ বন্ধের মেয়াদ আরও বাড়াতে হবে।

ভারতের সঙ্গে ৩ কোটি ডোজ টিকার চুক্তি রয়েছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, তবে এখন পর্যন্ত আমরা ৭০ হাজার পেয়েছি। অবশিষ্ট ডোজ টিকা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে, এটা বিপদজনক। ফলে দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে আমরা চিন্তিত।

তিনি বলেন, চীনের যে টিকা এসেছে সেটির প্রথম ডোজ আগামী ২৫ মে থেকে দেয়া শুরু হবে। এ ছাড়া আমরা রাশিয়া, চীন, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের সঙ্গে কথা বলেছি টিকার জন্য। ফাইনাল কিছু হলে জানতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া ও স্বাস্থ্যশিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর উপস্থিত ছিলেন।

HostGator Web Hosting