সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : নেতা তৈরি করার একটি প্রতিষ্ঠান ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। একইসঙ্গে দলের জন্য তার মতো নিবেদিত প্রাণকর্মী আমরা খুব কমই দেখেছি।

সোমবার (১৪ জুন) সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত মোহাম্মদ নাসিমের স্মরণসভার অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান।

মোহাম্মদ নাসিমকে স্মরণ করে তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন মোহাম্মদ নাসিমের মতো নেতৃত্বের অভাব আছে। তিনি আমার জন্য একজন অভিভাবক ছিলেন। সব থেকে বড় কথা তিনি একজন বটবৃক্ষ ছিলেন। যার কাছে আশ্রয় পাওয়া যেত। তিনি সবাইকে ধারণ করে রাখতেন। কীভাবে নেতা তৈরি করতে হয় তা তিনি জানতেন। তিনি নেতা তৈরির শিক্ষক ছিলেন। যেন একটি প্রতিষ্ঠান। আর দলের আন্দোলন-সংগ্রাম কীভাবে তৈরি হয় সেটিও খুব ভালো জানতেন। সব মিলিয়ে বলা যায়, আমাদের জন্য একজন প্রধান সেনানায়ক ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম।

মুরাদ হোসেন বলেন, বিএনপির সময়ে সরকার বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রাম করেছেন। সে সময় দলের অনেক নেতাকর্মীরাই সামনে থেকে সরে গেলেও মোহাম্মদ নাসিম, মতিয়া চৌধুরীরা সবসময় ছিলেন সামনের সারিতে। দলকে কীভাবে এগিয়ে নেওয়া যায়, দলের মানুষগুলোকে কীভাবে একত্রিত করে সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়া যায়, সেগুলো তাদের মতো করে আর কারো কাছ থেকে শেখা সম্ভব নয়। এছাড়া বিভিন্ন মন্তব্য, কথা, সংসদে বিভিন্ন বিল উপস্থাপনসহ সব কিছুতেই তিনি ছিলেন পরিপাটি একজন মানুষ।

বঙ্গবন্ধু একাডেমির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাব্বির আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দারসহ দল ও একাডেমির অন্য নেতাকর্মীরা।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম